অবশেষে সবার সামনেই গোপন কথাগুলো বলে দিলেন শ্রীলেখা

জাতীয়

রিয়্যালিটি শো ‘মীরাক্কেল’-এর বিচারকে’র আসন খুইয়েছেন সম্প্রতি। সেই আঘা’ত বিধ্ব’স্ত করে দিয়েছিল। তা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় একের পর এক পোস্ট করেছেন তিনি। ২৯ আগস্ট রাতে সে সব ঝে’ড়ে ফেলে শ্রীলেখা মিত্র স্বমহিমায়, সেলিব্রেশন মোডে।উপলক্ষ, ৩০ আগস্ট অভিনেত্রীর জন্মদিন। আগের রাতেই মেয়ে মাইয়্যা ইয়া বড় কেক এনেছে। উপহারের কেকও এসেছে। সব মিলিয়ে ‘রাত যৌব’নবতী’…!

সোশ্যালে ঘরোয়া পার্টির সেই ভিডিও রম’রমিয়ে ঘুরছে। শিফনের দু’ধ সাদা স্লিভ’লেস ড্রেসে, খো’লা চুলে শ্রীলেখা বহ্নিশিখা। পারছেন কী করে? প্রশ্ন করতেই জবাব এল, ‘আগর নামওয়ালা হুয়ি, তো বদনাম ভি। ’আরও এক বছর এগোনোয় পরিণত’মনস্ক’তার ছাপ? একটা করে

জন্মদিন আসে এক বছর করে আরও ‘ইয়ং’ হন শ্রীলেখা। মনের দিক থেকে আস্তে আস্তে মেয়ের থেকেও তরুণী হয়ে যাচ্ছেন ক্রমশ! সাফ জবাব অভিনেত্রীর।

ফ্যান্টাসিও। ওই জন্যেই তো আমাকে নিয়ে কী করবে, বুঝে উঠতে পারে না। নানা রকমের পথ অবলম্বন করে। তবু দমাতে পারে কই?’ আজ সারা দিন কী করবেন, কী পরবেন, কী খাবেন, কোথায় যাবেন? ‘জন্মদিন উপলক্ষে ইলিশ আনিয়েছি। ওটা কাল শান্তি করে খাব। আজ

আগের দিনের রান্নাতেই হয়ে যাবে। ’ তার পরেই আনমনা অভিনেত্রী, ‘মা থাকলে আজকের দিনে পায়েস রেঁধে দিত। পা ছুঁলে মাথায় হাত রেখে ম’ন্ত্র পড়ে আশী’র্বাদ করত। জড়িয়ে ধরে চু’মু খেত। এটা আর কেউ করে না। জন্মদিন এলেই নতুন করে মায়ের অভাব বোধ করি। ’

নিমেষে সামলে নিয়ে জ্ব’লে উঠলেন, ‘শাড়ি বেছেছি হ্যান্ড’লুমের সা’দা ঘেঁষা। গর’মে পরে আরাম। ‘ঈ’শ্বর সংকল্প’ স্বেচ্ছাসেবী সংস্থায় যাব। ওখানে কিছু ভালো-মন্দ খাওয়া দাওয়ার ব্যবস্থা করেছি। কোনো দিনই অন্যদের মতো ইন্ডাস্ট্রিকে তেল দিতে পার্টি করিনি। আজও না। বরং সেই পয়সা বাঁচিয়ে কিছু অসহায় মানুষের মুখে অন্ন তুলে দিতে পারলে তৃপ্তি বেশি। ’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *