আমার জীবনের ছবি হয়ে থাকবেন বাচ্চু ভাই: ওমর সানি

জাতীয়

জনপ্রিয় অভিনেতা সাদেক বাচ্চু আর নেই। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মহাখালীর ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে শোবিজ অঙ্গনে। বরেণ্য এই অভিনেতাকে হারিয়ে শোক প্রকাশ করছেন তার ভক্ত ও অনুরাগীরা। কিংবদন্তি এই অভিনেতাকে নিয়ে স্মৃতিচারণ করেছেন চিত্রনায়ক ওমর সানী। দীর্ঘদিন একসঙ্গে কাজ করেছেন সিনিয়র সাদেক বাচ্চুর সঙ্গে।

ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে সাদেক বাচ্চুকে নিয়ে সানি লিখেছেন, ‘সাদেক বাচ্চু একটা নাম, একজন অভিনেতা, একটা ইতিহাস। বহু বছর আগে হুমায়ুন ফরীদি ভাই যখন সুপারস্টার তখন তার শিডিউল পাওয়া ভিষণ দুষ্কর। পরিচালক উত্তম আকাশ দাদা এবং আমি চিন্তা করলাম কি করা যায়। বাচ্চু ভাইয়ের কাছে গেলাম। বাচ্চু ভাই বলল উত্তম তুমি আমার সাথে মজা করছো, তোমার ছবিতে নিবা আমারে ওমর সানির সাথে। আমি বললাম না বাচ্চু ভাই, আপনি থাকবেন।

সেই আখেরি হামলা, মুক্তির সংগ্রাম, রঙিন রংবাজ, আরো বহু ছবি একসাথে জুটি হলাম। আমার কাছে মনে হতো একটা ভালো মানুষের ডিকশনারি তিনি। আপনি চলে গেলেন আমাদেরকে রেখে। আল্লাহ উনাকে জান্নাত নসিব করুন। এবার বুঝি আমাদের পালা। ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি সবার কাছে। ক্ষমা করবেন। বাচ্চু ভাই আমার জীবনের ছবি হয়ে থাকবেন।’

আরও পড়ুন-ঢাকা, ১২ সেপ্টেম্বর- ঢাকাই সিনেমার সমালোচিত চিত্রনায়িকা মুনমুনের দ্বিতীয় সংসার ভেঙে গেছে। তার দ্বিতীয় স্বামী মীর মোশাররফকে তিনি কোরবানি ঈদের পর ডিভোর্স দিয়েছেন। বিষয়টি সময় সংবাদকে নিশ্চিত করেছেন মুনমুন নিজেই। এই দম্পতির ঘরে আট বছরের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। মুনমুন বলেন, ‘স্বামীর সাথে কোনো মনের মিল না থাকার কারণে আমি নিজেই তাকে ডিভোর্স দিয়েছি। আমি বর্তমানে একাই রয়েছি। মূলত নিজের মতো করে জীবন কাটানোর জন্য আমি ডিভোর্স দিয়েছি।’

এফডিসিপাড়ায় গুঞ্জন আছে আপনার প্রেম ঘটিত কারণে নাকি আপনার সংসার টিকেনি? এমন প্রশ্নে মুনমুন বলেন, আমার স্বামী প্রেম-ভালোবাসা বুঝত না। তিনি শুধু অর্থটায় দেখেছেন যার কারণে ডিভোর্স দিতে বাধ্য হয়েছি। এছাড়া অন্য কোনো কারণ নেই। আর আমার কারো সাথে প্রেমও নেই। প্রসঙ্গত, মুনমুন ও রোবেন একসাথে যাত্রা-শোয়ে কাজ করতেন। কাজ করতে গিয়ে তাদের প্রেমের সম্পর্ক হয়। সেখান থেকেই বয়সে ছোট রোবেনকে বিয়ে করেন মুনুমুন। এর আগে ২০০৬ সালে লন্ডন প্রবাসী এক সিলেটিকে বিয়ে করেন মুনমুন। সে ঘরে যশ নামের এক ছেলে সন্তান রয়েছে তার।সূত্র: সময় নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *