আসরের নামাজে থাকায় বেঁচে গেল ৫০ জন এতিম শিক্ষার্থী

পার্বত্য খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা উপজেলায় অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে গেছে হাফিজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানার আবাসিক শিক্ষার্থীদের বই-খাতা ও পোশাকসহ প্রয়োজনীয় সবকিছুই।বৃহস্পতিবার (২৬ ডিসেম্বর) বিকেলের দিকে উপজেলা সদরের নতুনপাড়া ক্বেরাতুল কোরআন ক্বারিমিয়া হাফেজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানায় এ ঘটনা ঘটে। তবে ঘটনার সময় শিক্ষার্থীরা মসজিদে আসরের নামাজরত থাকায় কোনো ধরনের হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

মাদরাসা ও এতিমখানার পরিচালক হাফেজ মো. নেছার উদ্দিন জানান, মাদরাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা আসরের নামাজ পড়তে মাদরাসা মসজিদে গেলে হঠাৎ করে আবাসিক ভবনে আগুনের সূত্রপাত হয়।কোনো কিছু বুঝে ওঠার আগেই মুহূর্তের মধ্যেই আগুনের লেলিহান শিখা ভবনজুড়ে ছড়িয়ে পড়ে। কিছুক্ষণের মধ্যেই পুরো কক্ষ আগুনের ধোঁয়ায় অন্ধকার হয়ে যায়।

এসময় শিক্ষার্থীদের বই, পোশাক, খাবারসহ সবকিছু পুড়ে ছাই হয়ে যায়। তিনি জানান, আবাসিক ভবনে ৫০ জনেরও বেশি শিক্ষার্থী থাকত। আরো পড়ুন…..তীব্র ঘন কুয়াশা আর হাড় কাঁপানো শীতে নীলফামারীর জনজীবন বিপর্যস্থ হয়ে পড়েছে। দুপুর পর্যন্ত ঘন কুয়াশায় আচ্ছন্ন হয়ে থাকছে পথ-ঘাট।মধ্যরাত থেকে সকাল ৮টা পর্যন্ত বৃষ্টির মতো কুয়াশা পড়ছে। খেটে খাওয়া মানুষজন শীত ও

কুয়াশার কারণে কাজে যেতে পারছেন না। দুপুরের পর সূর্যের দেখা মিললেও তেমন উত্তাপ ছড়াতে পাড়ছেনা। স্থানীয় আবহাওয়া অফিস সুত্র মতে আজ বৃহস্পতিবার (২৬ ডিসেম্বর) নীলফামারীর সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৮ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এদিকে গতকাল শতাধিক শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করেছে জামায়াতে ইসলামী নীলফামারী শহর শাখা। শহরের উকিলপাড়ায় শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্টানে উপস্থিত ছিলেন জেলা জামায়াতের নায়েবে আমীর মুক্তিযোদ্ধা মনিরুজ্জামান মন্টু, শহর আমীর এ্যাডভোকেট আল ফারুক ও শহর সেক্রেটারী এ্যাডভোকেট আনিছুর রহমান আজাদ।

Leave a Comment