ইউএনও’র ওপর হা-মলার মূল পরিকল্পনাকারী নবিরুল

জাতীয়

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার ইউএনও ওয়াহিদা খানম ও তার বাবার ওপর হা-মলার ঘ-টনায় তিনজন দায় স্বীকার করেছেন। আজ শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর) বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে র‍্যাব-১৩ এর অপারেশন অফিসার আবু বক্কর সিদ্দিক বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, ইউএনও ওয়াহিদা খানমের ভাইয়ের দায়ের করা মামলায় গ্রে-প্তার তিন জনকে দিনাজপুর থেকে র‍্যাব-১৩ এ সদর দ-প্তরে নিয়ে এসে ব্যাপক জি-জ্ঞাসাবাদ শেষে এ ঘ-টনায় জড়িত থাকার কথা স্বী-কার করেছেন। র‌্যাব জানায়, আসাদুলের ভাষ্য অনুযায়ী- উ-দ্দেশ্য ছিল চুরি। সি-সিটিভি ফু-টেজে পড়নে ছিল লাল গে-ঞ্জি পরা। র‌্যাব আরও জানান, ইউএনওর ওপর হা-মলার মূল পরিক-ল্পনাকারী নবীরুল জি-জ্ঞাসাবাদের এ তথ্য জানিয়েছেন আসামি আসাদুল। হা-মলার প্রকৃত কারণ জানতে আরও তদন্ত প্রয়োজন বলেও জানান র‌্যাব। তবে জি-জ্ঞাসাবাদে তারা আর কী কী তথ্য দিয়েছেন মামলার তদন্তের স্বার্থে এখনেই কিছু বলতে চাননি র‌্যাবের এই কর্মকর্তা। তিনি বলেন, ঘ-টনার গভীরে যেতে চায় র‌্যাব।

বুধবার দু-ষ্কৃতকারীরা দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াহিদা খানম এবং তার পিতা মু-ক্তিযো-দ্ধা ওমর আলীর ওপর হা-মলা চালিয়ে তাদেরকে গু-রুতর আহত করে। এই পৈশাচিক ও কাপুরুষোচিত হা-মলায় ওয়াহিদা খানম এবং তাঁর পিতা বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। গু-রুতর আহত অবস্থায় ওই রাতেই প্রথমে ঘোড়াঘাট স্বা-স্থ্য কমপ্লে-ক্সে ও পরদিন সকালে রংপুর কমিউনিটি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে বৃহস্পতিবার বাবা-মেয়েকে ঢাকায় আনা হয়। ভর্তি করা হয় রাজধানীর ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সে হাসপাতালে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *