ইউএনও’র জ্ঞান ফিরেছে, কথাও বলেছেন স্বামীর সঙ্গে

জাতীয়

দু-র্বৃত্তদের হা-মলায় গু-রুতর আহত দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহিদা খানমের জ্ঞান ফিরেছে। তার অবস্থা এখন স্থি-তিশীল রয়েছে। তবে তিনি এখনও শ-ঙ্কামুক্ত নন।বৃহস্পতিবার (৩ সেপ্টেম্বর) রাতে মাথায় অ-স্ত্রো-পচারের পর থেকে ঢাকার নিউরো সায়ে-ন্সেস ইনস্টিটিউট অ্যান্ড হাসপাতালে ৭২ ঘণ্টার পর্যবেক্ষণে রয়েছেন এ কর্মকর্তা। জ্ঞান ফেরার পর তিনি কথা বলেছেন তার স্বামীর সঙ্গে।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তার র-ক্তচাপ ও হৃদস্পন্দন স্বা-ভাবিক আছে। দুপুর নাগাদ তার পরি-স্থিতি জানাতে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলবেন হাসপাতাল ক-র্তৃপক্ষ।রাজধানীর ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসা-ইন্স হাসপাতালের উপ-পরিচালক অধ্যাপক ডা. বদরুল আলম বলেন,

ইউএনও ওয়াহিদার মাথায় অ-স্ত্রো-পচার শেষে রাতেই অপারেশন থিয়েটার থেকে আইসিইউতে স্থা-নান্তর করা হয়। রাতেই তার জ্ঞা-ন ফিরে এসেছে। তিনি বর্তমানে আইসিইউতে প-র্যবে-ক্ষণে রয়েছেন।

উল্লে-খ্য, বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত ৩টার দিকে সরকারি বাসভবনে ঢুকে ইউএনও ওয়াহিদা খানম ও তার বাবাকে পি-টিয়ে আহত করে দু-ষ্কৃতকারীরা। ওয়াহিদা খানমের বাবার নাম ওমর আলী। নওগাঁ থেকে মাঝে মাঝে মেয়ের বাড়িতে বেড়াতে আসেন মু-ক্তিযো-দ্ধা বাবা ওমর আলী।

ওয়াহিদা খানমের স্বামী মেজবাহুল হোসেন রংপুরের পীরগ-ঞ্জে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে ক-র্মরত। তাদের তিন বছরের ছেলে সন্তান রয়েছে। হা-মলার সময় শি-শুটি ঘু-মন্ত ছিল। বর্তমানে সে ভালো আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *