এবার করোনার সেই টিকার উন্নয়ন ঘটিয়ে বিশ্বকে আরও একবার চমকে দিল রাশিয়া

আন্তর্জাতিক

প্রাণঘা’তী করোনা’ভাইরাসের টিকা আবিষ্কারের ঘোষণা দিয়ে গোটা বিশ্বকে চ’মকে দিয়েছিল রাশিয়া। এবার সেই টিকার উন্নয়ন ঘ’টিয়ে বিশ্বকে আরও একবার না’ড়িয়ে দিল পুতিনের দেশ।জানা গেছে, ‘ফ্রো’জেন’ সং’স্ক’রণের পাশাপাশি টি’কার ‘ফ্রি’জ ড্রা’য়ে’ড’বা শুকনো সং’স্কর’ণও তৈরি করে ফে’লল ভ্লাদিমির পুতিনের দেশ। এই ‘ফ্রি’জ ড্রা’য়ে’ড’বা শুকনো টি’কা দেশের প্রত্যন্ত এলাকায় পাঠানো যাবে।

এটি ‘ফ্রো’জে’ন’ সং’স্ক’রণের মতো মা’ইনা’সে সংর’ক্ষণ করার ঝ’ক্কি নেই। ২ থেকে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে রাখলেই হবে। অর্থাৎ থা’র্মোক’লের বাক্সে ভরেই বিদ্যুৎবিহীন এলাকায় পাঠানো যাবে স্পুটনিক-ভি এর শুকনো টি’কা। বৃহত্তর অংশকে অবশ্য ফ্রো’জেন টিকাই দেওয়া হবে, যা ডিপ ফ্রি’জে মাইনাস ১৮ ডিগ্রি থেকে মাইনাস ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে বেশ কয়েকমাস ম’জু’ত রাখা যাবে।

ক্রা’য়ো প্রযু’ক্তির কে’রাম’তিতে তৈরি এই শুকনো টি’কা ডি’সটি’ল’ড ওয়াটারের সঙ্গে মিশিয়ে প্র’য়ো’গ করা হবে।স্পুটনিকের দ্বিতীয় পর্যায়ের ট্রা’য়া’লের ফল শুক্রবার বিশ্বব’ন্দি’ত ল্যানসেট ম্যাগাজিনে প্র’কা’শিত হয়। তাতে দেখা যায় কোনওরকম পা’র্শ্ব প্র’তিক্রি’য়া ছাড়াই অ্যা’ন্টি-ব’ডি তৈরি করতে স’ক্ষ’ম এই স্পুটনিক-৫। সেখানে দুই দলে ভাগ করে ৭৬ জনের ওপর প্র’য়ো’গ করা হয় টিকা। একটি দলের ওপর ফ্রো’জে’ন টি’কা। অন্য দলের স্বে’চ্ছাসে’বক’দের ওপর ফ্রি’জ-ড্রা’য়ে’ড বা শুকনো টি’কা। দু’টি ক্ষেত্রেই ভাল ফল মিলেছে বলে দা’বি রুশ বিজ্ঞানীদের।

রাশিয়ার বহু অঞ্চল মূল ভু’খ’ণ্ড থেকে কা’র্য’ত বি’চ্ছি’ন্ন। যেসব স্থানে বিদ্যুৎসহ বিভিন্ন নাগরিক সুযোগ-সুবিধা পাওয়া দু’ষ্ক’র। ওই সব দু’র্গ’ম অঞ্চলের বাসিন্দাদের কথা ভেবেই এই ফ্রি’জ ড্রা’য়া’র য’ন্ত্রের মাধ্যমে জলীয় অংশ বের করে দিয়ে সে’মি-স’লি’ড পর্যায়ে নিয়ে যাওয়া হয় টি’কাকে। যাতে অনেক দিন পর্যন্ত সাধারণ ফ্রিজেই মাসাধিক কাল রাখা যায় এই টিকা। সূত্র: নিউইয়র্ক টাইমস, দ্য কনভারসেশন, বায়োফার্মাডাইভ, দ্য প্রিন্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *