এবার পাঁচ ভারতীয় যুবককে ধ’রে নিয়ে গেলো চীনা সেনারা

আন্তর্জাতিক

পাঁচ ভারতীয় যুবককে চীনা সেনাবাহি’নী তু’লে নিয়ে গেছে বলে অভি’যোগ করেছেন ভারতের অরুণাচল প্রদেশের কংগ্রেস সংসদ সদস্য নিনং এরিং। এক টুইট বার্তায় নিনং এরিং জানান শনিবার (৫ সেপ্টেম্বর) ভোরে রাজ্যের আপার সুবর্ণসিরি জেলার নাচো সা’র্ক’ল এলাকা থেকে চীনের পিপলস লি’বারে’শন আ’র্মির সেনারা তু’লে নিয়ে যায় ওই পাঁচ ভারতীয় যুবককে। অ’প’হৃ’তরা সকলেই স্থানীয় তাজিন স’ম্প্র’দা’য়ের।

অরুণাচল পুলিশের ডিজি আর আর উপাধ্যায় জানিয়েছেন, শনিবার ভোরে নাচো সা’র্ক’লের সেরা-৭ এলাকার একটি জঙ্গল থেকে পাঁচ যুবককে অ’পহ’রণ করা হয়েছে। তবে অ’পহৃ’তদের পরিবারের পক্ষ থেকে পুলিশকে কোনো অভি’যোগ করা হয়নি। তাদের উ’দ্ধা’রে ভারতীয় সেনাবাহি’নীর সাহায্য চাওয়া হয়েছে।ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো জানায়, ওই যুবকরা শনিবার ভোরে সেরা-৭ এলাকার জঙ্গলে গাছের গু’ল্ম সংগ্রহ করতে গিয়েছিলেন।

তারা হলেন, তনু বাকার, প্রশাত রিংলিং, নগরু দিরি, দোংতু এবিয়া ও তচ সিংকম। সেখান থেকেই তাদের অ’পহ’র’ণ করা হয়েছে। অরুণাচল প্রদেশের পুলিশ সূ’ত্রে খবর, যেই স্থান থেকে পাঁচ যুবককে অ’প’হর’ণ করা হয়েছে সেই সেরা-৭ এলাকা থেকে ভারত-চীন প্রকৃ’ত নি’য়’ন্ত্রণরে’খা ১০০ কিলোমিটার দূরে।অ’পহৃ’তদের কোথায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে, সে ত’থ্য নেও’য়ার জন্য ভারতীয় সেনাবাহি’নীর সাহায্য চাওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে অরুণাচল প্রদেশের পুলিশ।

আরো পড়ুন…ইসলামের অন্যতম একটি বিধান হচ্ছে নামাজ। ইমান আনার পর প্রত্যেক মুসলমানের জন্য সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ ইবাদত হলো পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ। এ পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ফজিলতপূর্ণ ফজরের নামাজ। কোরআনে আল্লাহ ফজর নামে একটি সুরা অবতীর্ণ করেছেন। সেখানে বলেছেন, শপথ ফজরের। সুরা ফজর, আয়াত ১।

হাদিসে ফজরের নামাজের প্রতি বিশেষ তাগিদ এসেছে। রসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি ফজরের নামাজ আদায় করল সে আল্লাহর রক্ষণাবেক্ষণের অন্তর্ভুক্ত হলো।’ মুসলিম। অন্য হাদিসে ফজরের নামাজ আদায়কারীকে জান্নাতি মানুষ হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে। জাহান্নাম থেকে মুক্তি দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। রসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেছেন, ‘যে ব্যক্তি দুটি শীতল সময়ে নামাজ আদায় করবে, সে জান্নাতে প্রবেশ করবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *