কা`রাগারে যেভাবে দিন কাটছে রি`য়া চ`ক্রবর্তীর

জাতীয়

সু`শান্ত সিং রা`জপুতের মৃ`ত্যুর সঙ্গে জ`ড়িত মা`দককা`ণ্ডে এনসিবির হাতে গ্রে`ফতার হয়েছেন রি`য়া চ`ক্রবর্তী ও তার ভাই শৌ`ভিক চ`ক্রবর্তী। ম্যা`জিস্ট্রেট আ`দালতের পর শুক্রবার সেশন কোর্টেও খা`রিজ করা হয় `অ`ভিযুক্ত ভাই-বোনের জামিনের আ`র্জি। বি`চারক সাফ জানিয়ে দেন ‘জামিন মিলছে না’। তাই আ`পতত রি`য়ার ঠিকানা মুম্বাইয়ের বাইকুল্লা সংশোধনাগার জেলে। রিয়ার সু`রক্ষার কথা মা`থায় রেখে তাকে সা`ধারণ ব্যরাকে নয়, রাখা হয়েছে একটি পৃ`থক সেলে। সেই সিঙ্গেল সেলে না আছে সিলিং ফ্যান না রয়েছে বিছানা।

মঙ্গলবার এনসিবির হাতে গ্রে`ফতার হওয়ার পর বুধবার সকাল সোয়া ১০টা নাগাদ রি`য়াকে বাইকুল্লা জেলে স্থা`নান্তিরত করা হয়। এখানে রিয়ার একদম পাশের সেলে ঠাঁই হয় শিনা বোরা হ`ত্যাকা`ণ্ডের অ`ভিযুক্ত ইন্দ্রানী মু`খোপাধ্যায়ের।সু`শা`ন্ত সিং রা`জপুতের মৃ`ত্যুর মূল অ`ভিযুওক্তের ওপর জেলেও হা`মলা হতে পারে, এই আ`শঙ্কা থেকেই একদম আলাদা সেলে রাখা হয়েছে রি`য়াকে। সু`শান্ত কা`ণ্ডে জনতার একটা বড় অং`শের রো`ষের মুখে রিয়া।

যদিও স`ম্প্রতি ব`লিউডের বেশকিছু তারকাসহ বু`দ্ধিজীবীরা রি`য়ার পাশে দাঁ`ড়িয়ে বলেছেন ‘দো`ষী প্রমাণ না হওয়া পর্যন্ত নি`র্দোষ রিয়া’।তিনটি শিফটে দুইজন করে ক`নস্টেবল শুধু রি`য়াকে গা`র্ড দেওয়ার জন্য রাখা হয়েছে বা`ইকুল্লা জেলে। রিয়াকে ঘু`মানোর জন্য একটি চাটাই দেওয়া হয়েছে, নেই কোনও বা`লিশ বা বি`ছানার ব`ন্দোবস্ত। আদালত অনুমতি দিলে টেবিল ফ্যান দেওয়া হবে বলে জানান জেলের এক কর্মকর্তা।

ক`রোনার আবহে রো`গ প্র`তিরোধক ক্ষ`মতা বৃ`দ্ধি করার জন্য জেলবন্দিদের হলুদ গোলা দু`ধ দেওয়া হচ্ছে। মুম্বাইয়ের একমাত্র নারী সংশোধনাগর বাইকুল্লা জেল। গত কয়েক মাসে এখানে বেশ কয়েকটি কোভিড-১৯ রোগী শ`নাক্ত হন।এনসিবির দাবি মেনে মঙ্গলবার রিয়াকে ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠান ম্যাজিস্ট্রেট কোর্ট। সেই রায় বহাল থাকল সেশন কোর্টেও। সু`শান্তের জন্য মা`দক দ্র`ব্য সংগ্রহ করতেন রিয়া, সেই মা`দকের আ`র্থিক লেনদেনও করতেন অ`ভিযুক্ত।উল্লেখ্য, এনসিবি এনডিপিএস আইনের একা`ধিক ধা`রায় রি`য়াকে গ্রে`ফতার করেছে, যেখানে রয়েছে ২৭ (এ) ধা`রা। এটি জা`মিন অযোগ্য ধারা।

মূলত এর জে`রেই দুবার খারিজ হলো রিয়ার জা`মিনের আর্জি। আজও অ`ভিনেত্রীর জা`মিনের তীব্র বি`রোধিতা করে এনসিবি। এই ড্রা`গ সি`ন্ডিকেটের উ`পযুক্ত তদন্তের জন্য রি`য়াসহ সকল অ`ভিযুক্তের জেলে থাকাটা প্রয়োজনীয়, জানিয়ে দেয় এনসিবি।রিয়ার আইনজীবী সতীশ মা`নেসিন্ধে জা`নিয়েছেন, আগামী সপ্তাহে বম্বে হাইকোর্টে রিয়া, শৌ`ভিকের জামিনের আর্জি জানানো হবে। তাই সোমবার পর্যন্ত নিশ্চিতভাবেই বাইকুল্লা জেলই ঠিকানা রি`য়ার। সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *