কেক দিয়ে কোহলির পুরো মুখ মেখে দিল সতীর্থরা

Sports Tech Travel

বৃহস্পতিবার শুরু হয়ে গেছে আইপিএলে ফাইনালে ওঠার লড়াই। যদিও আজ (বৃহস্পতিবার) যে জিতবে তার সরাসরি ফাইনাল হলেও, যে হেরে যাবে তার বিদায় ঘটবে না। তার জন্য থাকবে আরেকটা সুযোগ।

তবে, শুক্রবার যে দুটি দল মুখোমুখি হচ্ছে, বিরাট কোহলির রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু আর সানরাইজার্স হায়দরাবাদ- তাদের মধ্যে যে হারবে তার তো বিদায় নিশ্চিতই। কিন্ত যে জিতবে তার ফাইনাল নিশ্চিত হবে না। তাকে মুখোমুখি হতে হবে, প্রথম কোয়ালিফায়ারে হেরে যাওয়া দলের।

তো শুক্রবার ইলিমিনেটর রাউন্ডে যখন সানরাইজার্স হায়দরাবাদের মত শক্তিশালী দল, তখন কী অবস্থা ব্যাঙ্গালুরু শিবিরে? মূলতঃ রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু শিবিরে যেন টাটকা বাতাস বয়ে নিয়ে এল অধিনায়ক বিরাট কোহলির জন্মদিন।

অন্যবার জন্মদিনের সময়টা ফ্র্যাঞ্চাইজি সতীর্থদের সঙ্গে কাটানোর সুযোগ হয় না। ব্যাতিক্রমী পরিস্থিতিতে এবার সেই সুযোগটা এল। কারণ করোনাভাইরাসের কারণে আইপিএল অন্যবার মার্চ-এপ্রিল-মে মাসের পরিবর্তে অনুষ্ঠিত হচ্ছে সেপ্টেম্বর-অক্টোবর-নভেম্বরে।

সবমিলিয়ে সন্তানসম্ভবা স্ত্রী আনুশকা শর্মার উপস্থিতিতে দুবাইয়ের টিম হোটেলে অধিনায়ক বিরাট কোহলির জন্মদিন স্পেশাল করে তুললেন তার ব্যাঙ্গালুরু সতীর্থরা।

মরুশহরে মা হতে ভারতীয় ক্রিকেটের ফার্স্ট লেডি বিরাটের সঙ্গী হয়েছেন অনেক আগেই। নিজের ৩২তম জন্মদিনে কোহলি এদিন যখন কেক কাটছেন পাশে তখন প্যাস্টেল ড্রেসে দাঁড়িয়ে থাকা আনুশকা বরাবরের মতোই যেন পরিপূর্ণ করছেন ভারত অধিনায়ককে। ঘড়ির কাঁটা রাত ১২টা বাজতেই দুবাইয়ের টিম হোটেলে কোহলির জন্মদিনের সেলিব্রেশন শুরু করেন সতীর্থরা।

বিরাট কেক কাটার পর আনুশকা প্রথমে তা খাইয়ে দেন বিরাটকে। এরপর পাল্টা বিরাট কেক খাইয়ে আলিঙ্গনাবদ্ধ করে নেন আনুশকাকে এবং স্নেহের চুম্বনও এঁকে দেন তার ললাটে।

বাগদত্তা ধনশ্রী বার্মার সঙ্গে ইয়ুজবেন্দ্র চাহাল, ইসুরু উদানা, শিবাম দুবে, ডেল স্টেইন কে নেই সেখানে? কেক কেটে একে অপরকে খাইয়ে দেওয়া পর্যন্ত সবকিছু ঠিকঠাক চলল।

এরপর শুরু হলো কেক মাখামাখি। এই পর্বের পর বার্থ ডে বয় বিরাট কোহলিকে চেনা যেন দায় গয়ে পড়েছে। তার মাথা-মুখ পুরো কেকে মাখামাখি। বিরাট কোহলি, আনুশকা শর্মা কিংবা ধনশ্রী প্রত্যেকেই তাদের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে শেয়ার করলেন সেই ছবি। সবমিলিয়ে আরব আমিরাতে আইপিএলের ইলিমিনেটর যুদ্ধে নামার আগে অধিনায়কের জন্মদিন সেলিব্রেশন সাময়িক সব টেনশন দূর করে দিল আরসিবি শিবিরে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *