কো`য়ারেন্টিনের ছাড়পত্র আনতে গিয়ে স্বাস্থ্যকর্মীর ধ`র্ষ`ণের শি`কার তরুণী

জাতীয়

ভা`রতের তি`রুবনন্তপু`রমের পা`নগো`ডে পু`লিশ এক জু`নিয়র স্বাস্থ্য প`রিদর্শককে গ্রে`প্তার করেছে। কো`য়ারেন্টিন থেকে মু`ক্তির ছা`ড়পত্র নিতে গিয়ে নিজের বাড়িতে ত`রুণীকে ধ`র্ষ`ণ করার দায়ে তাকে সো`মবার সকালে গ্রে`প্তার করে স্থানীয় পু`লিশ।ধ`র্ষ`ণের শি`কার ওই ত`রুণী কু`লাথুপুজারের স্থানীয় বা`সিন্দা। তিনি মা`লাপুপুরে ক`র্মস্থল থেকে ফিরে আসার পরে থেকেই নিজ বাড়িতে কো`য়ারেন্টিনে ছিলেন।

গ্রে`প্তার হওয়া ব্য`ক্তি প্র`দীপ কু`লাথুপুজার প্রা`থমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রের স্বাস্থ্য প`রিদর্শক।পু`লিশ জানিয়েছে, ঘ`টনাটি গত ২ সে`প্টেম্বর প`ঙ্গোড থানা সী`মান্তের ভ`রতহন্নুরে স্বা`স্থ্যকর্মী প্র`দীপের ভা`ড়া বা`সায় ঘ`টেছিল। প্র`দীপকে ভা`রতীয় দ`ণ্ডবিধির ৩৭৬ (ধ`র্ষ`ণের শা`স্তি) ধা`রায় গ্রে`প্তার করা হয়েছে।ভু`ক্তভো`গী ওই ত`রুণী মা`লাপুপুরে গৃ`হপরিচারিকা হিসেবে কাজ করতেন। আগস্টের শেষে কুলাথুপুঝায় এসেছিলেন।

এরপর তাকে নিজের বাড়িতে কো`য়ারেন্টিনে রাখা হয়। প্রা`থমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নেওয়া অ্যা`ন্টিজেন প`রীক্ষার সময় ফল নে`গেটিভ আসে। এরপর কো`য়ারেন্টিন থেকে মু`ক্তির ছাড়পত্র সংগ্রহের জন্য ওই ত`রুণীকে নিজের ফোন নম্বর দেন স্বাস্থ্যকর্মী প্র`দীপ।বৃহস্পতিবার তিনি ওই ত`রুণীকে নি`জের বা`সায় নি`মন্ত্রণ করেছিলেন। তারপর বাসায় যেতেই যৌ`ন নি`র্যা`তন করেন তিনি।

ধ`র্ষ`ণ শেষে কারো কাছে এই ঘ`ট`নার কথা না বলতে হু`মকিও দেন। কিন্তু ওই ত`রুণী ভে`লরারাডা পু`লিশে অ`ভিযোগ দায়ের করেন। এরপর তাকে সোমবার সকালে গ্রে`প্তার করা হয়। জি`জ্ঞাসাবাদ শেষে প্র`দীপ অ`পরাধ স্বী`কার করেছেন। তাকে ম্যা`জিস্ট্রেটের সামনে হাজির করা হবে এবং একটি মেডিক্যাল পরীক্ষাও করা হয়েছিল।সূত্র: নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

দৃষ্টি আকর্ষণ এই সাইটে সাধারণত আম’রা নিজস্ব কোনো খবর তৈরী করি না..আম’রা বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবরগুলো সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি..তাই কোনো খবর নিয়ে আ’পত্তি বা অ’ভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কতৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *