খালেদার ভুয়া জন্মদিনে উপহার পাঠানোয় চীন দুঃখ প্রকাশ করে যা বললেন

জাতীয়

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ‘ভুয়া’ জন্মদিনে উপহার পাঠানোর জন্য পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেনের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেছে ঢাকাস্থ চীনা দূতাবাস।বাংলাদেশে নিযুক্ত দেশটির উপ-রাষ্ট্রদূত হুয়ালং ইয়াং সম্প্রতি মোমেনকে টেলিফোনে এ দুঃখ প্রকাশ করেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র রোববার (৭ সেপ্টেম্বর) এসব তথ্য জানায়।

সূত্রটি আরো জানায়, সম্প্রতি পররাষ্ট মন্ত্রণালয় থেকে চীনা দূতাবাসের কাছে জানতে চাওয়া হয়, খালেদা জিয়ার জন্মদিন ‘ভুয়া’। এমন ‘ভুয়া’ জন্মদিনে কেন তাকে উপহার পাঠানো হলো। পরে চীনের উপ-রাষ্ট্রদূত এ বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে ফোন করে জানান, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাদের কাছে এ ধরনের উপহার পাঠানো চীনের জাতীয় নীতিতে রয়েছে। তারা বছরের পর বছর এটা চর্চা করে আসছে। এরই অংশ হিসেবে বিএনপি চেয়ারপারসনের জন্মদিনে এ উপহার পাঠানো হয়।

কিন্ত তার জন্মদিন নিয়ে বিতর্ক রয়েছে বা এটা ‘ভুয়া’ জন্মদিন তা তারা জানতেন না। এটা যে সংবেদনশীল তা বুঝতে পারেননি। তারা ‘ভুল’ করেছেন।সূত্রটি জানায়, চীনা দূতাবাস এর জন্য ‘ক্ষমা’ চেয়েছে এবং তারা বিষয়টিতে সতর্ক থাকবেন।খালেদা জিয়ার জন্মদিন নিয়ে অনেকদিন থেকেই দেশের রাজনৈতিক অঙ্গণে বিতর্ক চলে আসছে। বিভিন্ন গণমাধ্যমে তার জন্মদিন হিসেবে আগস্ট ৫, ১৯৪৪, আগস্ট ১৯, ১৯৪৭, সেপ্টেম্বর ৫, ১৯৪৬ এবং আগস্ট ১৫, ১৯৪৬ এ চারটি দিন পালনের তথ্য পাওয়া যায়।

সমালোচনা রয়েছে যে, বাংলাদেশ যেদিন জাতীয় শো’ক দিবস পালন করে সেদিন চীনা দূতাবাস খালেদার ‘ভুয়া’ জন্মদিনে তাকে শুভেচ্ছা জানিয়ে ফুল পাঠায়।জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শা’হাদত বার্ষিকী উপলক্ষে গত ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস যথাযোগ্য শ্রদ্ধা ও মর্যাদার সাথে দিনটি পালন করা হয়েছে।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট একদল বিপথগামী সেনা সদস্য বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্থপতি শেখ মুজিবুর রহমানসহ তার পরিবারের বেশিরভাগ সদস্যদের হত্যা করে। তার দুই কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং তার বোন শেখ রেহানা ওইসময় বিদেশে থাকায় এ হ’ত্যাকাণ্ড থেকে বেঁচে গিয়েছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *