গত ২৪ ঘন্টায় সুস্থ হয়েছেন আরও ১,৭৬৬ জন করোনা রোগী

জাতীয়

দেশে গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে ২ হাজার ৪৮৭ জনের দেহে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত করা হয়েছে। ১০ হাজার ৭৫৯টি নমুনা পরীক্ষা করে এই সংখ্যা পাওয়া যায়। শনাক্তের হার ২৩.১২ শতাংশ।একই সময়ে প্রাণঘাতী ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন আরও ৩৪ জন। এনিয়ে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে প্রাণহানি হলো মোট ৩ হাজার ৩৯৯ জনের।মারা যাওয়া ৩৪ জনের মধ্যে ৩১ জন পুরুষ আর ৪ জন নারী।

যারা মারা গেছেন, তাদের মধ্যে ঢাকা বিভাগের ১৪ জন, খুলনা বিভাগের ৭ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের ৬ জন, রাজশাহী বিভাগের ৪ জন, রংপুর বিভাগের ২ জন এবং ময়মনসিংহ বিভাগের ১ জন।রবিবার দুপুরে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে স্বাস্থ্য

অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা এই তথ্য জানান।তিনি বলেন, গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৭৬৬ জন। এ নিয়ে মোট ১ লাখ ৪৮ হাজার ৩৭০ জন করোনা রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। সুস্থতার হার ৫৭.৬০

শতাংশ।গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয় এবং ১৮ মার্চ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। এরপর থেকে করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা লাফিয়ে বাড়ছে।

আরও পড়ুন=ভারতের হালের সর্বাধিক জনপ্রিয় র‌্যাপার বাদশার বিরুদ্ধে কয়েক কোটি ফেক ভিউ কেনার অভিযোগ উঠেছে। ভার্চুয়াল মাধ্যমে নিজের আপলোড করা গানের ভিউ বাড়াতে ৭২ লাখ রুপি খরচ করে ‘ফেক ভিউ’ কিনেছেন তিনি। ‘বড় লোকের বেটি লো’খ্যাত বাদশার

বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ এনেছে মুম্বাই পুলিশ। আর অভিযোগটি স্বীকারও করেছেন তিনি।পুলিশকে উদ্ধৃত করে ভারতীয় গণমাধ্যম মুম্বাই মিরর জানিয়েছে, প্রথম ২৪ ঘণ্টার ভিউতে বিশ্বরেকর্ড গড়তে একটি মিউজিক ভিডিওর জন্য ৭.২ কোটি ভিউ কিনেছিলেন বাদশা। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ফেক ভিউ বিক্রিকারী একটি প্রতিষ্ঠানকে এ জন্য ৭২ লাখ রুপি দিয়েছেন বাদশা। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

পুলিশের দাবি, জিজ্ঞাসাবাদে বাদশা ভুয়া ভিউ কেনার বিষয়টি স্বীকার করেছেরুমুম্বাই পুলিশের ডেপুটি কমিশনার মিররকে বলেছেন, ‘জিজ্ঞাসাবাদে র্যাপার বাদশা স্বীকার করেছেন যে, তিনি ফেক ভিউ বাড়াতে একটি কোম্পানিকে ৭২ লাখ রুপি দিয়েছেন। একটি গানে ২৪ ঘণ্টার বিশ্বরেকর্ড দখল করতে এই অসাদু উপায় অবলম্বন করেন বাদশা। তার ‘পাগল হে’ গানের পাশাপাশি অন্য ভিডিওর ভিউও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *