চূড়ান্ত ধাপে গ্লোবের তৈরি দেশি ভ্যাকসিন

Lifestyle Music জাতীয়

অ্যানিমেল ট্রায়াল ‌শেষ করে করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন আবিষ্কারের তৃতীয় অর্থাৎ চূড়ান্ত ধাপের জন্য প্রস্তুত ওষুধ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান গ্লোব বায়োটেক লিমিটেড। ভ্যাকসিন আবিষ্কারের অগ্রগতি, সাফল্য, প্রতিবন্ধকতাসহ বিভিন্ন বিষয়ে জানতে চাইলে প্রতিষ্ঠানটির রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট ডিপার্টমেন্টের প্রধান ডা. আসিফ মাহমুদ গমমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘জুলাই মাসে একটা সংবাদ সম্মেলন করেছিলাম। সেখানে বলেছিলাম, ৬ থেকে ৮ সপ্তাহের মধ্যে আমরা একটা রেগুলেটর অ্যানিমেল ট্রায়াল করবো। আমাদের ওই অ্যানিমেল ট্রায়াল শেষ পর্যায়ে। এই সপ্তাহের শেষ অথবা সামনের সপ্তাহের শুরুতে আরেকটা সংবাদ সম্মেলন করে রেগুলেটর অ্যানিমেল ট্রেলের ডাটা সবাইকে জানাবো।’ ডা. আসিফ বলেন, ‘এর মধ্যে আমরা একটা পাবলিকেশন জমা দেব। এই অ্যানিমেল ট্রায়ালের ডাটা নিয়ে আমাদের সিআরও বাংলাদেশ চিকিৎসা গবেষণা পরিষদে (বিএমআরসি) আর্টিকেল অ্যাপ্রোভালের জন্য আবেদন করবে।

আর্টিকেল অ্যাপ্রোভাল পেয়ে গেলে এগ্রিমেন্ট শুরু করবো। এটা নির্ভর করছে বিএমআরসি কত দ্রুত আমাদের প্রটোকলটা রিভিউ করে তারা অ্যাপ্রোভাল দেবে তার ওপরে।’ স্বেচ্ছাসেবী বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা প্রচুর স্বেচ্ছাসেবীদের সাড়া পাচ্ছি। অনেকে মেইল করছে, মেসেজ পাঠাচ্ছে- ‘যে আমরা স্বেচ্ছাসেবী হতে চাই’। আমরা যারা এর সঙ্গে জড়িত আছি, নিজেরাও স্বেচ্ছাসেবী হতে চাই।’

আরও পড়ুন= আমাদের মধ্যে অনেকেই আছি যারা কাজ ছাড়াও সময় কাটাচ্ছি মোবাইল, টেলিভিশন অথবা ল্যাপটপ নিয়ে। এতে করে কারও কারও চোখ জ্বালা, চোখ শুকিয়ে যাওয়া, চোখে অস্বস্তি, চোখ লাল হওয়া, ভারী ভাব, ঝাপসা দেখা, কপাল, ঘাড়, পিঠ, কোমর, মাথা ব্যথা সমস্যা দেখা দিচ্ছে। ছোট-বড় সবাই এই সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন। এই ধরনের সমস্যাকে বিশেষজ্ঞরা কম্পিউটার ভিশন সিনড্রোম বা ডিজিটাল আই স্ট্রেন হিসেবে চিহ্নিত করছেন।

এ ধরনের সমস্যা থেকে বাঁচতে ও চোখের সুরক্ষায় কিছু বিষয় অনুসরণ করার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।১. ডিজিটাল আই স্ট্রেন এড়াতে ঘন ঘন বিরতি নিন। প্রতি ২০ মিনিট পর অন্তত ২০ সেকেন্ড করে বিরতি নিন, ২০ ফুট দূরত্বে কোন জিনিসের দিকে তাকান। আবার ৩০ মিনিট পর ৫ মিনিটের বিরতি নিন। প্রতি ৩০ মিনিট থেকে এক ঘণ্টা পর চোখে পানির ঝাপটা দিতে পারলে ভালো হয়। এটি চোখকে সুস্থ রাখার পাশাপাশি মানসিক স্বাস্থ্যেরও উপকার করবে।

২. কাজ করার মাঝে যখন বিরতি নেবেন তখন চোখের বিভিন্ন ব্যায়াম করুন। নিয়মিত চোখের ব্যায়াম করলে চোখের পেশিগুলি শক্তিশালী হয়ে ওঠে। এতে চোখের নানা ধরনের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।৩. স্ক্রিনে কোন জিনিস লেখা বা দেখার সময় লেখার সাইজ বাড়িয়ে নিন, যাতে ডিভাইসগুলিকে দূরে রেখে সহজেই পড়তে বা কাজ করতে পারেন। এতে চোখে চাপ কম পড়বে এবং চোখ সুস্থ থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *