ঢাকায় নিজের ঘর চিনছেন না জনপ্রিয় নায়িকা পপি

জাতীয়

চিত্রনায়িকা সাদিকা পারভীন পপি করোনা জয় করেছেন। ২২ জুলাই জনপ্রিয় এ নায়িকার দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছিল। প্রায় একমাস বাসায় থেকে চিকিৎসা নেয়ার পর তিনি আরোগ্য লাভ করলেন।বর্তমানে পপি ভালো আছেন। তিনি জানান, দু-দফায় করোনার রেজাল্ট নেগেটিভ পেয়েছেন। পপি বলেন, এখন সম্পূর্ণ সুস্থ। মাঝেমধ্যে শরীর দুর্বল লাগে। চিকিৎসকের পরামর্শে ভিটামিন ও পুষ্টিকর খাবার খাচ্ছি।

‘শুরুতে শ্বাসকষ্ট হতো। ভেবেছিলাম মরেই যাবো! ভয়ে মাঝেমধ্যে ভেঙে পড়তাম। পরেই সবার মানসিক সাপোর্ট মনোবল শক্ত করে সার্বক্ষণিক চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে ঔষধ নিয়েছি। মানুষের দোয়ায় ও আল্লাহর অশেষ রহমতে সুস্থ হয়ে উঠছি।এ যাত্রায় বড় বাঁচা বেঁচেছি।’আক্রান্ত হওয়ার সময় পপি ছিলেন খুলনায়, তার নিজ বাড়ি খালিশপুর। করোনার আগে সেখানে বেড়াতে গিয়ে লকডাউনে আকটে যান পপি। ওই সময়ই পপি স্থানীয় মানুষদের ত্রাণ দিতে ছুটেছেন শহরের এমাথা ওমাথা।

তিনি বলেন, মানুষকে সাহায্য করতে গিয়ে নিজেই করোনা আক্রান্ত হয়েছিলাম।তবে করোনা ধকল কাটিয়ে সম্প্রতি পপি ঢাকায় ফিরেছেন। নগরীর ইস্কাটনের বাসায় তিনি সম্পূর্ণ বিশ্রামে আছেন। বলেন, পাঁচ মাস ঢাকার বাসায় ছিলাম না। ধুলো-ময়লা পড়ে যা তা অবস্থা হয়েছে। সব পরিষ্কার করছি। এই মুহূর্তে কাজে ফেরার ইচ্ছে নেই। দুটি ছবি ও বিজ্ঞাপনের প্রস্তাব পেলেও না করে দিয়েছি।

৫ মাস পর ঢাকায় ফিরে নিজের ঘর চিনতে পারছেন না জানিয়ে পপি বলেন, ‘করোনামুক্ত হওয়ার পরও ফিরব কি ফিরব না, সেই দোটানায় ছিলাম। অনেকের সংক্রমিত হওয়ার খবরও পাচ্ছিলাম। তারপরও প্রয়োজনীয় কাজ থাকায় ঢাকায় ফিরতে হয়েছে। প্রায় পাঁচ মাস পর ঢাকায় ফিরে দেখলাম, পুরো বাসায় ধুলাবালি। ঘর গোছানোর কাজ করছি। করোনার মধ্যে নতুন কয়েকটি ছবিতে অভিনয়ের প্রস্তাব এসেছিল। কিন্তু এই মুহূর্তে শুটিংয়ে ফেরার কোনো চিন্তাভাবনা নেই। আপাতত সুস্থ থাকাটা বেশি জরুরি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *