নারী থেকে পুরুষে রূপান্তরিত হয়ে প্রেমিকাকে বিয়ে করলেন

কোভিড

নারী থেকে পুরুষে রূপান্তরিত হয়ে প্রেমিকাকে বিয়ে করলেন নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার শাহরিয়ার সুলতানা। বর্তমানে তার নাম রাখা হয়েছে শাহরিয়ার জাইন। নারী থেকে পুরুষে রূপান্তর হতে যে মেয়েটি তাকে সহায়তা করেছেন এবং জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত সঙ্গে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তাকেই জীবনসঙ্গী হিসেবে বেছে নিলেন তিনি। ঘটনাটি ঘটেছে নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার লক্ষ্মীকোল বাজার এলাকায়।

এলাকাবাসী জানায়, বড়াইগ্রামের লক্ষ্মীকোল বাজারের পুলিশের অবসরপ্রাপ্ত সহকারী উপপরিদর্শক সাজেদুর রহমানের সংসারে ৩৫ বছর আগে জন্ম নেন শাহরিয়ার সুলতানা। শাহরিয়ার সুলতানা কলেজে পড়া অবস্থায় তার শারীরিক কিছু পরিবর্তন দেখা দেয়। এ পরিস্থিতিতে বিএ পাস করে বাড়িতেই থাকতেন তিনি। এর মধ্যে তার শরীরের গঠন অনেকটা পুরুষের মত হয়ে যায়।

শাহরিয়ার সুলতানা জানান, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দুই বছর আগে বগুড়া সদর উপজেলার শিববাটি এলাকার মাহবুবা আক্তারের সঙ্গে পরিচয় হয় তার। পরিচয়ের একপর্যায়ে তিনি মাহবুবাকে তার সমস্যার কথাগুলো জানান। এ সময় মাহবুবা চিকিৎসার পরামর্শ দেয়ার পাশাপাশি সারাজীবন পাশে থাকার আশ্বাস দেন। এছাড়াও চিকিৎসার জন্য অর্থনৈতিকভাবে সহযোগিতা করেন।

প্রায় বছর খানেক আগে ভারতের একটি হাসপাতালে স্তন অপারেশন এবং জেন্ডার ডিসফোরিয়া অপারেশন করেন তিনি। এরপর আস্তে আস্তে সম্পূর্ণ পুরুষে রূপান্তরিত হন।তিনি আরও জানান, তার বর্তমান নাম শাহরিয়ার জাইন। সম্পূর্ণ পুরুষ হওয়ার পর তাদের মধ্যে সম্পর্ক আরও শক্ত হয়। দুইজনই বিয়ের বিষয়ে উভয় পরিবারকে জানান। দুই পরিবারের সম্মতিতে গত ৩০ আগস্ট তাদের বিয়ে হয়েছে।

তার স্ত্রী মাহবুবা আক্তার বলেন, শাহরিয়ার জাইনকে অনেক ভালো মানুষ মনে হয়েছে। তাই তাকে বিয়ে করেছি। বিয়ের পরে সুখে-শান্তিতেই আছি।বড়াইগ্রাম পৌরসভার কাউন্সিলর আবু জাফর ঘটনার সত্যতা নিশ্চত করে জানান, শাহরিয়ার সুলতানা নারী থেকে পুরুষে রূপান্তরিত হয়েছেন। বর্তমানে তিনি বিয়ে করে সংসার করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *