নিজের জন্য যেমন পাত্র খুঁজছেন শ্রীলেখা

জাতীয়

শ্রীলেখা মিত্রের বড় পর্দায় অনেকদিনই দেখা নেই। মীরাক্কেলে বিচারক হিসেবে ছিলেন। সেখান থেকেও বাদ দেওয়া গুনজন শোনা যাচ্ছে এই জনপ্রিয় অভিনেত্রীকে। এদিকে নিজের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্টাটাস দিয়ে পাত্র খোঁজা শুরু করেছেন শ্রীলেখা মিত্র। অভিনেত্রী

শ্রীলেখা মিত্রের বিশেষ বৈশিষ্ট্য হচ্ছে তিনি অন্য সকলের থেকে আলাদা। অভিনেত্রীদের ক্ষেত্রে বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে জনপ্রিয়তায় ভাটা পড়তে শুরু করে। একই সঙ্গে পরিবর্তন হয় শারীরিক সৌন্দর্যেরও। কিন্তু শ্রীলেখা মিত্রের ক্ষেত্রে বিষয়টি একেবারেই ভিন্ন।

অল্প বয়সে এতটা জনপ্রিয়তা ছিল না শ্রীলেখার। বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আরও বেশি জনপ্রিয় হয়েছেন শ্রীলেখা। মীরাক্কেলর শুরু থেকে বিচারক হিসেবে ছিলেন শ্রীলেখা মিত্র। কিন্তু বিচারক শ্রীলেখা মিত্রকে ছাড়াই আগামী সিজন শুরু করছে মীরাক্কেল। অভিনেত্রী নিজে সরে যাননি। তাঁকে বাদ দেওয়া হয়েছে। আর এই বঞ্চনার পিছনে রয়েছে শ্রীলেখার প্রতিবাদী সত্তা। এমনই দাবি করেছেন ক্ষুব্ধ শ্রীলেখা মিত্র।

তিনি বলেন, ‘জনপ্রিয় কমেডি শো আমাকে ছাড়াই শুরু হতে চলেছে। সত্য বলার জন্য আমায় এই শাস্তি পেতে হল।’ তেল দেওয়ার ক্ষমতা না থাকার জন্য এমনটা ঘটেছে বলেও দাবি করেছেন শ্রীলেখা। তাঁর কথায়, ‘সিস্টেমটাই এমন হয়েছে যে তেল দেওয়া বাধ্যতামূলক।’

এই অবস্থায় নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় শ্রীলেখা মিত্র বলেছেন, ‘ভাবছি নিজের জন্য পাত্র দেখা শুরু করব। আর তো ইন্ডাস্ট্রি কাজ দেবে না। অতএব…’ একই সঙ্গে সকলের কাছে তিনি জানতে চেয়েছেন, ‘সুপাত্র আছে নাকি?’এই পাত্র খোঁজার বিষয়টি যে নেহাতই মজার ছলে বলা তা ওই পোস্টেই জানিয়ে দিয়েছেন অভিনেত্রী শ্রীলেখা। ফেসবুক পোস্টের শেষ লাইনে তিনি লিখছেন, ‘দেখুন এই বিশৃঙ্খল অবস্থাতেও আমার হাস্যরসের কোনও খামতি হয়নি।’ তবে হাস্যরস যে খুব ভালো নয়, সেটাও ওই ফেসবুক পোস্টে উল্লেখ করে দিয়েছেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *