পা কে’টে নিয়ে জয় বাংলা স্লোগান দেয়া সেই চেয়ারম্যান অবশেষে গ্রে’ফতার

জাতীয়

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজে’লার কৃষ্ণনগর ইউনিয়নে থানাকান্দি গ্রামে মোবারক হোসেন নামে এক ব্য’ক্তির দে’হ থেকে পা বি’চ্ছিন্ন করে জয় বাংলা স্লোগান দিয়ে নৃ’শংসভাবে হ’ত্যা করা হয়। সেই মা’মলার প্রধান আ’সামিকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে।এ মা’মলার প্রধান আ’সামি হলেন সাবেক কৃষক দল নেতা ও উপজে’লার বীরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের ব’হিষ্কৃত চেয়ারম্যান কবির আহমেদ।র‌্যা’পিড অ্যা’কশন ব্যা’টালিয়ন র‌্যা’ব-৯ মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল ক্যা’ম্পের স’দস্যরা তাকে রোববার সাড়ে ৭টার দিকে উপজে’লার সিন্দুরখান এলাকায় অ’ভিযান চা’লিয়ে তাকে গ্রে’ফতার করেন।

সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) র‌্যা’ব-৯ এর শ্রীমঙ্গল ক্যাম্পের স্কোয়ার্ট ক’মান্ডার সোমেন মুজুমদার জানান, রোববার সন্ধ্যা ৬টায় দিকে গো’পন সংবাদের ভিত্তিতে খবর আসে ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগর উপজে’লার বীরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের বহিষ্কৃত চেয়ারম্যান এবং হ’ত্যা মা’মলার প্র’ধান আ’সামি মো. কবির আহমেদ শ্রীমঙ্গলে আত্নগো’পন করে আছেন।

পরে অ’ভিযান চা’লিয়ে সিন্দুরখান এলাকা থেকে তাকে ধরা হয়। সেখানে তিনি একটি স্টেশনারি দোকান খুলে ব্যবসা শুরু করেছিলেন।র‌্যা’ব ক’র্মকর্তা সোমেন মুজুমদার আরো জানান, তার বি’রুদ্ধে আরো একাধিক মা’মলা রয়েছে।করোনায় ক্ষ’তিগ্রস্ত দ’রিদ্রদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর এককালীন ২৫০০ টাকা প্রদানের তালিকায় অ’নিয়মের অ’ভিযোগের ঘটনায় স্থা’নীয় স’রকার ম’ন্ত্রণালয়ের আদেশে ২৮ মে তাকে ব’হিষ্কার করা হয়।

আরও পড়ুন=সবার ওপরে আছেন পেসার উমর গুল। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ ৮৫৭ রেটিং পয়েন্ট তাঁর। এক সময় নিয়মিত ১২ ওভারের পরে বল করতে এসে রিভার্স সুইংয়ে প্রতিপক্ষকে ধসিয়ে ফেলতেন গুল। ক্যারিয়ারের গতিপথ ধরে রাখতে না পারলেও তাঁর সে রেটিং এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়ে গেছে। ৬০ ম্যাচে ঈর্ষণীয় ১৬.৯৭ গড়ে ৮৫ উইকেট নেওয়া গুলের কীর্তিটা কত বড় সেটা বোঝা যায় বর্তমান র‍্যাঙ্কিংয়ে নজর দিলে। বিশ্বের সেরা টি-টোয়েন্টি বোলার এখন রশিদ খান।

আফগান লেগ স্পিনারের রেটিং পয়েন্ট ৭৩৬। ক্যারিয়ারে সর্বোচ্চ ৮১৬ পয়েন্ট পাওয়া রশিদ অবশ্য সর্বকালের সেরাদের তালিকার পাঁচে আছেরু শীর্ষ পাঁচে পাকিস্তানের আর কেউ নেই। ৮৫৫ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আরেক লেগ স্পিনার স্যামুয়েল বদ্রি। এই ওয়েস্ট ইন্ডিয়ানের পর আছেন ড্যানিয়েল ভেট্টোরি। সাবেক নিউজিল্যান্ড অধিনায়কের ক্যারিয়ার সর্বোচ্চ রেটিং ৮৫০। চারে আবারও এক উইন্ডিজ স্পিনার। ক্যারিয়ারের শুরুতে হইচই ফেলে দেওয়া সুনীল নারাইন মাত্র ১ পয়েন্টের ব্যবধানে পেছনে ফেলেছেন রশিদকে।

এরপরই শুরু পাকিস্তানিদের জয়জয়কার। সাবেক অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি আছেন ছয়ে। টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তানের সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহক আফ্রিদি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেই তাঁর চেয়ে বেশি উইকেট নিয়েছেন মাত্র একজন। ৯৯ ম্যাচে নিয়েছেন ৯৮ উইকেট পাওয়ার আফ্রিদির পয়েন্ট ৮১৪। সাতে আছেন ৭৯৫ পয়েন্ট পাওয়া দক্ষিণ আফ্রিকার ইমরান তাহির। সাবেক অফ স্পিনার সাঈদ আজমল আছেন তালিকার আটে। ৬৪ ম্যাচে ৮৫ উইকেট পেয়ে ম্যাচ প্রতি উইকেটে আফ্রিদির চেয়ে এগিয়ে আজমল। কিন্তু ক্যারিয়ারে সর্বোচ্চ ৭৮৮ রেটিং পয়েন্ট তুলতে পেরেছেন শেষ দিকে বোলিং অ্যাকশন বদলাতে বাধ্য হওয়া আজমল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *