পা নেই, হাতে উপর ভর করেই পবিত্র কাবা ৭ বার তাওয়াফ করল এই কি’শোর!

জাতীয়

ই’চ্ছা শ’ক্তি আর ইসলামেরপতি ভালবাসা থাকলে কি না সম্ভব। দুই পা ছাড়া এক চতুর্থাংশ শ’রীর নিয়ে জ’ন্ম হয়েছিল কাতারের প্রতিব’ন্ধী কি’শোর গানিম আল মুফতার। এখন সে হুইল চেয়ারে করে চলাচল করে সে।এদিকে পবিত্র কাবা শরীফের কাছে আসলে তিনি ইসলাম ধর্মের প্রতি আবেগঘন ভালোবাসা ব্যক্ত করেছে। এ সময় তিনি হুইল চেয়ার থেকে নেমে দুই হাতে ভর দিয়ে কাবা শরীফ তাওয়াফ করেছে প্রতিব’ন্ধী কি’শোর গানিম আল মুফতার।

এদিকে সাতবার কাবা তাওয়াফ করে প্রতিব’ন্ধী গানিম। সামাজিক মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে এই তাওয়াফের ভিডিও প্রচারের পর বেশ সাড়া পড়েছে। জানা যায়, কি’শোর গানিমের স্বপ্ন ছিল নিজহাতে পবিত্র কাবা শরীফ তাওয়াফ করা এবং পবিত্র হাজরে আসওয়াদ পাথরে চু’ম্বন করা।আর তার এমন স্বপ্নের কথা জেনে তা পূরণে তার জন্য ওমরা পালনের ব্যবস্থা করেন সৌদি পর্যটন এবং জাতীয় ঐতিহ্য কমিশনের চেয়ারম্যান প্রিন্স সুলতান বিন সালমান বিন আবদুল আজিজ।

এদিকে গানিম প্রতিব’ন্ধী হওয়ায় কাবা তাওয়াফসহ ওমরা পালনে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থার প্রয়োজন ছিল। এজন্য একটি বিশেষ টিমের মাধ্যমে গানিম ও তার পরিবারের সদস্যদের মক্কায় পৌঁছানোর পর থেকে ওমরা পালনের শেষ পর্যন্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়।এ সময় মক্কায় গানিমকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান প্রিন্স সুলতান। এছাড়া মক্কার গ্র্যান্ড মসজিদের ইমাম শেখ মাহের আল-মুয়াকলির পেছনে গানিম’দের নামাজ পড়ানোর ব্যবস্থা করা হয়।

এদিকে প্রতিব’ন্ধী গানিম হাত দিয়ে ভর দিয়ে পবিত্র কাবা তাওয়াফ করতে পারায় দারুণ খুশি। এ জন্য প্রিন্স সুলতান ও শেখ মাহেরে প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছে এই কি’শোর।সৌদি আরবের ফটোগ্রাফার রাইদ আলেহায়ানি কখনো কল্পনাও করেননি তাঁর একটি ছবি সারা বিশ্বে এ রকম জনপ্রিয় হবে। সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম আল আরাবিয়ায় আলোচিত ছবিটি প্রকাশিত হয়েছিল।

এতে দেখা যায়, কাবা শরিফের পাশে এক লোক নামাজ আদায় করছেন আর তাঁর স্ত্রী নিজের ছায়া স্বা’মীর শ’রীরের ও’পর ফে’লেছেন, যাতে রোদে তাঁর ক’ষ্ট না হয়।এবারের হজের মধ্যে আরাফাতের দিন ছবিটি তোলা। যদিও এরই মধ্যে হজের আনুষ্ঠানিকতা শেষ হয়েছে। ফটোগ্রাফার আলেহায়ানি বলেন, তিনি দৃশ্যটি পবিত্র মসজিদের ও’পর থেকে দেখছিলেন এবং ছবিটি তুলে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শেয়ার করেন।

এরপর এটি ভাইরাল হয়েছে। লাখ লাখ লাইক ও কমেন্টে ভরে যায় তাঁর ফেসবুক। সৌদি আরবের মিস্ক ফাউন্ডেশনের অধীনে আলেহায়ানি চলতি বছর হজ কাভার করেন। তিনি বলেন, ছবিতে থাকা ভদ্রলোক তাঁর স’ঙ্গে দেখা করেছেন এবং সৌহার্দ্যপূর্ণ ছবিটি শেয়ারের জন্য ধ’ন্যবাদ জানিয়ে গেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *