প্রবাসীর স্ত্রীর লাশ হাসপাতালে রেখে পালিয়েছে শ্বশুরবাড়ির লোকজন

জাতীয়

কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার জগতপুর গ্রামের প্রবাসী ওয়াসিমের স্ত্রী সানজিদা আক্তারের (৩০) লাশ হাসপাতালে রেখে পালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুড়িচং থানা পুলিশ খবর পেয়ে বুড়িচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে লাশ উদ্ধার করে। পলাতক রয়েছেন শ্বশুর,শাশুড়ি, ননদ ও দেবর।স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, জেলার বুড়িচং উপজেলার জগতপুর মনাগোষ্ঠীর সৌদি আরব প্রবাসী ওয়াসিমের স্ত্রী

সানজিদা আক্তারের লাশ বুড়িচং স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রেখে পালিয়ে যায় শ্বশুরবাড়ির লোকজন।ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার দুপুরে। জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে নিহতের শ্বশুর ওয়াহেদ মিয়া ও শাশুড়ি এবং ননদ শাহনাজ, সালমা আক্তারসহ দেবর হৃদয় সানজিদা আক্তারকে যৌতুকের টাকার জন্য প্রায়ই নির্যাতন চালিয়ে আসছিল। প্রতিদিনের মতো সোমবার দুপুরে নির্যাতনের

এক পর্যায় তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন নিহত সানজিদা আক্তারের ভাই মো. কামরুল হাসান। শ্বশুরবাড়ির লোকজন লাশ হাসপাতালে রেখে পালিয়ে যায়। কারও সাথে কোনো যোগাযোগ রাখারও চেষ্টা করেনি- এতেই বোঝা যায় আমার বোনকে হত্যা করা হয়েছে।মৃত সানজিদা ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার গোপালনগর

গ্রামের প্রবাসী মফিজুল ইসলামের ছোট মেয়ে। সানজিদা আক্তারের একমাত্র মেয়ে রোমানা আক্তার (৩) জানায়, তার মাকে মৃত্যুর আগে মারধর করেছে।এ বিষয়ে বুড়িচং থানার (পরিদর্শক) ওসি মাসুদ খান জানান, আমরা খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেছি এবং আইনি প্রক্রিয়া অব্যাহত রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *