প্রেমিকার উষ্ণ ভালোবাসা পেতে সাত সমুদ্র তের নদী পার হয়ে চট্টগ্রামে ব্রিটিশ যুবক

প্রেমিকার উষ্ণ ভালোবাসা পেতে সাত সমুদ্র তের নদী পার হয়ে চট্টগ্রামে গ্রাহাম স্টুয়ার্ট নামে এক ব্রিটিশ যুবক। ঘটনা এখানেই শেষ নয়, প্রেমের পরিণতি ঘটাতে সুদূর ব্রিটেন থেকে উড়ে এসে বিয়ের পিঁড়িতেও বসলেন এই যুবক। তরুণীর নাম ফেরদৌসি কবির মুক্তা।মুক্তা চট্টগ্রামের সন্দ্বীপের হুমায়ুন কবির হেলালীর মেয়ে।

নবদম্পতি বর্তমানে চট্টগ্রামের কোতোয়ালি থানার লাভলেন এলাকায় কবির হেলালীর বাড়িতে অবস্থান করছেন।মুক্তার বাবা সংবাদমাধ্যমকে জানান, ২০১৭ সালে লন্ডনের নটিংহাম ইউনিভার্সিটিতে পড়তে যায় মুক্তা। লন্ডনে পড়াকালীন গ্রাহামের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। এরপর থেকে নিয়মিত যোগাযোগ হতো তাদের। তিনি আরো বলেন, দেশের সামাজিকতার বিষয়টি তাকে জানানোর পর সে এখানে এসে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেয়। গত ১৪ ডিসেম্বর গ্রাহাম দেশে আসে। এরপর থেকে সে আমাদের বাসায় আছে।বৃহস্পতিবার গায়ে হলুদ ও শনিবার চট্টগ্রাম নগরে পারিবারিকভাবে তাদের বিয়ে হয়েছে।

আরও পড়ুনঃবঙ্গবন্ধু বিপিএলে ঢাকায় দ্বিতীয় পর্বের খেলা শুরু হয়েছে। দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে খুলনা টাইগার্স ও রংপুর রেঞ্জার্স। এ ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে অধিনায়ক মুশফিকের ফিফটিতে ভর করে বড় সংগ্রহ পেয়েছে খুলনা। নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে দলটির সংগ্রহ ৭ উইকেট হারিয়ে ১৮২ রান।শুরুতে টস জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন রংপুর অধিনায়ক শেন ওয়াটসন।

ব্যাট হাতে উড়ন্ত সূচনা করেন খুলনার দুই ওপেনার নাজমুল হোসেন শান্ত ও মেহেদী হাসান মিরাজ। ১২ রানে মিরাজকে ফেরানোর পরের বলেই রুশোকে আউট করে হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনা জাগান মুস্তাফিজুর রহমান। তবে শেষ পর্যন্ত তা হয়নি।দ্রুত দুই উইকেট হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়ে খুলনা। এসময় প্রাথমিক বিপর্যয় সামাল দেন শান্ত ও শামসুর রহমান।

দুজনে ফেরেন যথাক্রমে ৩০ ও ১৩ রানে।এরপর নাজিবুল্লাহ জাদরানকে সঙ্গে নিয়ে পাল্টা আক্রমণ শুরু করেন মুশফিকুর রহিম। দুজনে গড়েন ৮২ রানের জুটি। ৪১ রান করে আউট হন নাজিবুল্লাহ। এর আগে ফিফটি তুলে নেন মুশফিক। শেষ ওভারে ৫৯ রানে সাজঘরে ফেরেন মিস্টার ডিপেন্ডেবল। রাজশাহীর হয়ে একাই তিন উইকেট নেন মুস্তাফিজ। এছাড়া দু’টি উইকেট নেন গ্রেগরি, নবী শিকার করেন একজনকে।

Leave a Comment