প্রেমিকের বাড়িতে তিনদিন ধরে অনশনে প্রেমিকা

জাতীয়

ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলায় প্রেমিকের বাড়িতে তিনদিন ধরে অনশন করছেন এক প্রেমিকা। রোববার (০৬ সেপ্টেম্বর) থেকে স্ত্রীর স্বীকৃতি চেয়ে অনশন শুরু করেন তিনি।খোঁজ নিয়ে জানা যায়, উপজেলার কামারগাঁও ইউনিয়নের ভেরুয়া গ্রামের আবুচাঁদের ছেলে সাদ্দাম হোসেনের (২৬) সঙ্গে ফুলপুর উপজেলার এক তরুণীর (২২) ফেসবুকে পরিচয় হয়। এরপর তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

দীর্ঘ দুই বছর ধরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক চলছে। এরই মধ্যে তাদের শারীরিক সম্পর্ক হয়। এরপর ওই তরুণীকে এড়িয়ে চলতে থাকেন সাদ্দাম। উপায় না পেয়ে স্ত্রীর স্বীকৃতি চেয়ে অনশন শুরু করেন ওই নারী।তারাকান্দা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল খায়ের বলেন, এ ঘটনা আপনার মাধ্যমে এখন জানতে পেরেছি। যদি ভিকটিমের পরিবার থেকে এ বিষয়ে অভিযোগ দেয়অ হয় তাহলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও পড়ুনঃবাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের নির্বাচনে যে ৪৯ জন মনোয়নপত্র উত্তোলন করেছিলেন, তারা সবাই তা জমা দিয়েছেন। মঙ্গলবার ছিল মনোনয়নপত্র জমার দিন। প্রথমেই মনোয়নপত্র জমা দেন এককভাবে সহ-সভাপতি পদে নির্বাচন করার ঘোষণা দেয়া তাবিথ আউয়াল। এরপর বিকেল ৫টা পর্যন্ত সবাই তাদের মনোয়নপত্র জমা দিয়েছেন। কেউ নিজে এসে কেউ আবার প্রতিনিধির মাধ্যমে।বর্তমান সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিনের নেতৃত্বে সম্মিলিত পরিষদের ২১ জনের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন এই প্যানেলের প্রধান সমন্বয়কারী জাতীয় সংসদের হুইপ শামসুল হক চৌধুরী। সফিকুল ইসলাম মানিক নিজেই সভাপতি পদে তার মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

আরেক সভাপতি প্রার্থী বাদল রায়ের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন শরীয়তপুরের কাউন্সিলর মোজাম্মেল হক চঞ্চল।তফসিল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র বাছাই শুরু হবে ১১ সেপ্টেম্বর বিকেল ৩টা থেকে। বুধবার থেকে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার শুরু হবে। ১২ সেপ্টেম্বর বিকেল ৫টা পর্যন্ত মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করা যাবে, চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হবে ১৩ সেপ্টেম্বর। ৩ অক্টোবর দুপুর ২টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ করা হবে হোটেল সোনারগাঁওয়ে।কাজী মো. সালাউদ্দিনের প্যানেলের বাইরে যারা বিভিন্ন পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন, তারা এক হয়ে লড়বেন নাকি বিচ্ছিন্নভাবে, সেটা জানা যাবে চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশের পর।

নিজের প্যানেলের সবার মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার পর আনুষ্ঠানিক ব্রিফিংয়ে কাজী মো. সালাউদ্দিন বলেন, ‘আমরা ২১ পদে প্রার্থী দিয়েছি। আমার সঙ্গে সিনিয়র সভাপতি হিসেবে আছেন আবদুস সালাম মুর্শেদী, আছেন আরো চারজন সহ-সভাপতি এবং ১৫ জন সদস্য।’বিজয়ের ব্যাপারে কতটা আশাবাদী জানতে চাইলে কাজী মো. সালাউদ্দিন বলেন, ‘এখন পর্যন্ত অফিশিয়ালি জানি না, কারা কারা নির্বাচন করছেন। চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশের পর আমরা যখন নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করবো, তখন এ প্রশ্নের উত্তর দিতে পারবো। এখন কিছু বললে সেটা আগেভাগে মন্তব্য করা হবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *