ফের বাড়বে পেঁয়াজের দাম

দাম বাড়ছে বলে পেঁয়াজ রপ্তানি পুরোপুরি বন্ধ করে দিয়েছিল ভারত। তাতেও তেমন লাভ হয়নি। পণ্যটি কিনতে গিয়ে নাস্তানাবুদ হতে হয়েছে ক্রেতাদের। মাঝখানে এর দাম কিছুটা কমলেও আবার বাড়ার আশঙ্কা করছেন পেঁয়াজের রাজধানী খ্যাত নাশিকের ব্যবসায়ীরা।ব্যবসায়ীদের সূত্রের বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম বলছে, ভারতের মতো বিদেশে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তুরস্ক।

এতে ভারতও আমদানি সংকটে পড়বে পণ্যটি নিয়ে। বরাবরের মতো বাজারে আবার বেড়ে যাবে পেঁয়াজের দাম।নাশিকের পেঁয়াজের পাইকারি বাজারের এজেন্টদের একাংশ জানাচ্ছে, তুরস্কেও পেঁয়াজের দাম বেড়ে গেছে। তাই দাম নিয়ন্ত্রণে আনতে আপাতত বিদেশের বাজারে পেঁয়াজ রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে আঙ্কারা। এতে করে ভারতের বাজারে পেঁয়াজের দর ১০ থেকে ১৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন ব্যবসায়ীরা।

কারণ দর সামলাতে চলতি অর্থবছরে সাত হাজার টনের কিছু বেশি পেঁয়াজ বিদেশ থেকে আমদানি করেছে ভারত। এর মধ্যে ৫০ শতাংশের বেশি পেঁয়াজই এসেছে তুরস্ক থেকে। নিজের দেশে পরিস্থিতি আয়ত্তে থাকায় এতদিন পেঁয়াজ রপ্তানি করেছে তুরস্ক।তিন মাস ধরে পেঁয়াজের দাম আকাশছোঁয়া। এক সময় দাম বাড়তে বাড়তে তা ১৫০ রুপির উপরে গিয়েছিল। শেষপর্যন্ত তুরস্ক থেকে আমদানি করা শুরু হলে দাম কিছুটা কমে।

এদিকে, ভারত বিদেশে রপ্তানি বন্ধ করে দিলে পেঁয়াজের দাম আকাশছোঁয়া হয়ে পড়ে বাংলাদেশেও। প্রায় ৩০০ টাকা কেজি দরে পর্যন্ত কিন্তু হয়েছে পণ্যটি। এরপর নিজেদের উৎপাদন বাজারে আসায় কিছুটা প্রভাব পড়ে। তবে এখনও যে পেঁয়াজ ক্রেতার নাগালে এসেছে, তা কিন্তু নয়।

Leave a Comment