ফেসবুকে মানহানিকর পোস্ট,মা`রাত্মক ভাবে ফেঁ`সে গেলেন যুবক

কক্সবাজারের টেকনাফে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের হওয়া মা`মলায় পিকলু দত্ত নামে এক যুবককে গ্রে`ফতার করেছে পু`লিশ। বৃহস্পতিবার স`ন্ধ্যায় পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ড রাশিয়ান ফিশারী সংলগ্ন কায়ুকখালী পাড়া থেকে তাকে গ্রে`ফতার করা হয়।পিকলু দত্ত চট্রগ্রাম জেলার সাতকানিয়া থানার বাসিন্দা হলেও বর্তমান পৌরসভার কায়ুকখালী পাড়ার সাধন দত্তের ছেলে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত কয়েকদিন আগে তার ফেসবুক আইডি থেকে দৈনিক প্রথম আলোর টেকনাফ প্রতিনিধি গিয়াস উদ্দিনকে উদ্দেশ্য করে মানহানিকর ছবি পোস্ট করায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ২৪ ডিসেম্বর মঙ্গলবার টেকনাফ মডেল থানায় মামলা করা হয়। মামলা নং ৮২ তাং ২৪-১২-১৯ইং ধারা-২০১৮ সনের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৫ ও ২৯। এটি টেকনাফে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের হওয়া প্রথম মামলা।

ফেসবুকের মাধ্যমে পিকলু দত্ত দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন লোকজনের পাশাপাশি তার হিন্দু সম্প্রদায়ের ধর্মের ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালিয়ে আসছিলেন।বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই সাব্বির আহমেদ বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলায় পিকলু দত্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে আদালতে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

আরও পড়ুনঃনোয়াখালী সদর উপজেলায় প্রাথমিক শিক্ষায় বিশেষ অবদান রাখায় শ্রেষ্ঠ ইউএনও নির্বাচিত হয়েছেন মো.আরিফুল ইসলাম সরদার। ২০১৯ সালে ১৭টি বিভিন্ন ক্যাটাগরির মধ্যে ইউএনও হিসেবে তিনি জেলার শ্রেষ্ঠ নির্বাচিত হন।শ্রেষ্ঠ শিক্ষক, শিক্ষিকা, কর্মকর্তা, কর্মচারী, ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের বাছাই কমিটির সভাপতি ও ডিসি তন্ময় দাস স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে তাকে জেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ ইউএনও হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

এরআগে ২০১৮ সালেও তিনি জেলার শ্রেষ্ঠ ইউএনও হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন।মো.আরিফুল ইসলাম সরদার ২০১৭ সালের ১১ মে এ উপজেলায় যোগদান করেন। তিনি গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী উপজেলার শুক্তা গ্রামের আ.স.ম মঈনুদ্দীন সরদারের ছেলে। যোগদানের পর থেকেই মেধা, যোগ্যতা আর দায়িত্ববোধের প্রমাণ দিয়ে তিনি জয় করে নিয়েছেন উপজেলাবাসীর মন। সেরা নির্বাচিত হওয়ায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাগণ তাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

Leave a Comment