বন্ধুর দেয়া নম্বরে প্রেম করে অবশেষে জানলেন বোন, অতঃপর

জাতীয়

বন্ধুর দেয়া নম্বরে প্রেম করে অবশেষে জানলেন বোন, নেত্রকোনায় আদালত প্রাঙ্গণে বন্ধুর ছু‘রিকা‘ঘাতে ব‘ন্ধু আ‘হত হয়েছেন। রোববার (০৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নেত্রকোনা জজ কোর্ট চ‘ত্বরে ছু‘রিকাঘা‘তের এ ঘ‘টনা ঘটে।গু‘রুতর আ‘হত আজাহারুল ইসলামকে (২৫) প্র‘থমে নেত্রকোনা আ‘ধুনিক সদর হাসপাতাল এবং পরে উ‘ন্নত চি‘কিৎসার জন্য ম‘য়মনসিংহ

মে‘ডিকেল ক‘লেজ হাসপাতালে পাঠান চি‘কিৎসকরা। আ‘হ‘ত আজাহারুল ইসলাম পূ‘র্বধলা উপজেলার ভুগী গ্রামের বা‘সিন্দা। তিনি জমি-সংক্রান্ত মা‘মলায় হাজিরা দিতে দুপুরে আ‘দালতে এসেছিলেন।আ‘জাহারুলের বন্ধু রবিউল আলম বিজয় (২৩) নেত্রকোনা সদর উপজেলার হোসেনপুর গ্রা‘মের আ‘ফতাব উ‘দ্দিনের ছেলে।

ছু‘রিকাঘা‘তের ঘ‘টনার পরপরই আ‘দালত প্রা‘ঙ্গণ থেকে র‘বিউলকে র‘ক্তমা‘খা ছু‘রিসহ হাতেনাতে আ‘টক করে পু‘লিশ।তিনি এখন পু‘লিশ হেফাজতে রয়েছেন বলে জানান নেত্রকোনার (সদর সার্কেল) অ‘তিরিক্ত পু‘লিশ সুপার মো‘র্শেদা খাতুন।আ‘টকের সময় র‘বিউল আ‘লম বিজয় বলেন, আমরা দুইজন বন্ধু। দুই বছর আগে এক মেয়ের মোবাইল নম্বর আমাকে দিয়েছিল আজাহারুল।

ওই মোবাইল নম্বরের সূত্র ধরে মেয়েটির সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে আমার। দীর্ঘদিন ওই মেয়ের জন্য অনেক অর্থ ও সময় নষ্ট হয়েছে। পরে জানতে পারলাম মেয়েটি আমার চাচাতো বোন। পূর্ব পরিকল্পনা করে আমাকে চাচাতো বোনের ফোন নম্বর দিয়েছিল আজাহারুল।

তাদের দুইজনের যোগসাজশে আমার অর্থ ও জীবন নষ্ট হয়ে গেছে। এজন্য আজ বন্ধুকে ছু‘রিকা‘ঘাত করেছি।এ ব্যা‘পারে নেত্রকোনার (সদর সার্কেল) অ‘তিরিক্ত পু‘লিশ সু‘পার মোর্শেদা খাতুন বলেন, র‘বিউলকে হাতেনাতে ছু‘রিসহ আ‘টক করা হয়েছে। প্রেম সং‘ক্রান্ত কা‘রণে বন্ধুর বু‘কে ছু‘রি মেরেছে রবিউল। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *