বাংলাদেশ-ভারতের সম্পর্ক বন্ধুত্বের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ

Fashion

ভারতীয় হাইকমিশনের সহকারী হাইকমিশনার সঞ্জিব কুমার ভাট্টি বলেছেন, বাংলাদেশ-ভারতের সম্পর্ক বন্ধুত্বের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ। দুই দেশের মধ্যে আস্থা ও বিশ্বাসের সেতুবন্ধ তৈরি হয়েছে। এ সেতুবন্ধ তৈরি হয়েছে এ দেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ থেকে। দুই দেশের সম্পর্ক অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে সৌহার্দ্যপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে।

দেশের উন্নয়নে অভ্যন্তরীণ স্থিতিশীলতার পাশাপাশি প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে সুসম্পর্ক প্রয়োজন বলে উল্লেখ করেন সঞ্জিব কুমার ভাট্টি।তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে কোনো দেশই প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে খারাপ সম্পর্ক রেখে এগোতে পারে না। প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে ভালো বোঝাপড়া থাকলে অনেক অমীমাংসিত ইস্যু সহজেই সমাধান সম্ভব, যার প্রমাণ বাংলাদেশ ও ভারত।

তিনি আরও বলেন, সমকালীন বিশ্বে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত বাংলাদেশ।শনিবার (৩ অক্টোবর) দুপুর ১২টায় পাবনা প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে পাবনা জেলায় কর্মরত সংবাদকর্মীদের সঙ্গে এক মতবিনিময় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সঞ্জিব কুমার ভাট্টি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পাবনা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এবিএম ফজলুর রহমান। সভায় স্বাগত বক্তব্য দেন প্রেস ক্লাব সম্পাদক সৈকত আফরোজ। বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক ও কলামিস্ট রণেশ মৈত্র, রবিউল ইসলাম রবি, আব্দুল মতীন খান, আখতারুজ্জামান আখতার, মীর্জা আজাদ, শহিদুর রহমান শহিদ, হাবিবুর রহমান স্বপন, আঁখিনূর ইসলাম রেমন প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, আবহমানকাল থেকে এদেশে বিভিন্ন ধর্মের মানুষ মিলেমিশে বসবাস করে আসছে। এ অসাম্প্রদায়িক চেতনা দিয়েই এদেশে গড়া হবে এদেশের সমৃদ্ধির সোপান। তারা বাংলাদেশিদের জন্য ভারতের ভিসা প্রক্রিয়া সহজ করার দাবি জানান।সহকারী হাইকমিশনার সঞ্জিব কুমার ভাট্টি আরও বলেন, বিগত এক দশকে বাংলাদেশ সামাজিক উন্নয়নসহ অনেক ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব অগ্রগতি হয়েছে। এটি বন্ধুপ্রতীম দেশের জন্য ভালো লাগার বিষয়।

দীর্ঘ মেয়াদি ভিসা ও সহজীকরণ বিষয়ে সঞ্জিব ভাট্টি বলেন, বৈশ্বিক সমস্যা করোনাভাইরাসের কারণে স্বাস্থ্য নিরাপত্তাসহ সার্বিক কারণেই ভিসা প্রদানে কিছুটা জটিলতা হয়েছে। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ভিসা প্রক্রিয়াটাও সহজ হবে।অনুষ্ঠানের শুরুতেই দুই দেশের জাতীয় সংগীত পরিবেশন শেষে ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার সঞ্জিব কুমার ভাট্টিকে প্রেস ক্লাবের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা স্মারক উপহার দেয়া হয়। অন্যদিকে পাবনা প্রেস ক্লাবকে ভারতীয় হাইকমিশনের পক্ষ থেকে তিনটি কম্পিউটার প্রদান করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *