বাইকার প্রেমীদের জন্য দারুন সুখবর বাজারে আসছে চোখ ধাঁধানো ইলেকট্রিক বাইক

জাতীয়

প্রথম দেখাতেই যেকেউ মুগ্ধ হতে বাধ্য, এমনই ইলেকট্রিক বাইক বাজারে আনছে আল্ট্রাভায়োলেটি অটোমোটিভ নামের এক প্রতিষ্ঠান। মডেলটির নাম দেয়া হয়েছে ‘এফ৭৭’। বাইকটির সর্বোচ্চ গতিবেগ ১৪৭ কিলোমিটার এবং এটি মাত্র ৭.৫ সেকেন্ডেই ০-১০০ কিমি/ঘণ্টা গতি এক্সেরেলেট করতে পারে।এফ৭৭ বাইকটি ২৫ কিলোওয়াটের

(৩৩.৫ হর্সপাওয়ার) পিএমএসএম (পারমানেন্ট ম্যাগনেট সিঙ্ক্রোনাস মোটর) এর মাধ্যমে পরিচালিত। মোটরটির ৩৩.৫ হর্স পাওয়ার এবং ৯০ ন্যানোমিটারের টর্ক আউটপুট রয়েছে।বাইকটিতে রিমুভেবল লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারির তিনটি ইউনিট দেয়া হয়েছে। যার ক্যাপাসিটি ৪.২ কিলোওয়াট/ঘণ্টা। ব্যাটারি স্টান্ডার্ড চার্জ হতে ৫ ঘণ্টা এবং অপরদিকে ফাস্ট চার্জিং হতে সময় নেয় দেড় ঘণ্টা। এসি এবং ডিসি উভয়ই চার্জিংয়ের জন্য এতে সিসিএস টাইপ -২ চার্জিং পোর্ট রাখা রয়েছে।

এক চার্জে ১৩০ থেকে ১৫০ কিলোমিটার দূরত্ব অতিক্রম করতে পারবে এ বাইক।বাইকটির অসংখ্য ফিচারের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে ডুয়াল চ্যানেল এবিএস, ইউএসডি ফ্রন্ট ফর্ক, রিয়ার মনোশোক, ফোর জি এলটিই কানেক্টিভিটি ও জিওফেন্সিং। এছাড়া বাইকটির রক্ষণাবেক্ষণ এবং ডায়াগনস্টিকস বিশ্লেষণ করতে সক্ষম একাধিক অনবোর্ড সেন্সর দেয়া হয়েছে। তবে বাইকটির দাম এখনো জানা যায়নি।

আরও পড়ুন= জীবনের কোনো না কোনো পর্যায়ে মাথাব্যথায় ভোগেননি, এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। কিছু মাথাব্যথা থেকে খুব সহজে নিস্তার পাওয়া যায়, আবার কিছু ব্যথা আমাদের জন্য বিপদ নিয়ে আসতে পারে। তাই আমাদের সবারই উচিত মাথাব্যথা নিয়ে সতর্ক থাকা।
এসকেএফ নিবেদিত বিশেষ আয়োজন ‘মাথা নিয়ে মাথাব্যথা’ অনুষ্ঠানে সপ্তাহব্যাপী আমরা জানতে পারব বিভিন্ন ধরনের মাথাব্যথা ও তার প্রতিকার সম্পর্কেচলছে মাইগ্রেন ও মাথাব্যথা নিয়ে সচেতনতা সপ্তাহ।

এ উপলক্ষে এসকেএফ নিবেদিত বিশেষ আয়োজন ‘মাথা নিয়ে মাথাব্যথা’ অনুষ্ঠানে সপ্তাহব্যাপী আমরা জানতে পারব বিভিন্ন ধরনের মাথাব্যথা ও তার প্রতিকার সম্পর্কে। অনুষ্ঠানটির প্রথম পর্ব ৬ সেপ্টেম্বর একযোগে সরাসরি সম্প্রচারিত হয় প্রথম আলোর ফেসবুক পেজ ও ইউটিউব চ্যানেল এবং এসকেএফের ফেসবুক পেজ থেকে। বিষয় ছিল ‘স্ট্রোক ও মস্তিষ্কের রক্তনালির রোগজনিত মাথাব্যথা’। এ পর্বের অতিথি ছিলেন ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস অ্যান্ড হসপিটালের সহযোগী অধ্যাপক ডা. শিরাজী শাফিকুল ইসলাম। সঞ্চালনা করেন ডা. শ্রাবণ্য তৌহিদা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *