বিদ্যুৎস্পৃষ্টে স্ত্রীর মৃত্যু, বাঁচাতে গিয়ে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে স্বামী

কোভিড

চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে বিদ্যুতের ছেঁড়া তারে জড়িয়ে রুবি আক্তার (৩০) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। এ সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট স্ত্রীকে বাঁচাতে গিয়ে এখন নিজেই জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে স্বামী ফরিদ আহমদ (৪০)।শনিবার (২২ আগস্ট) রাতে উপজেলার সরল ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের র্পূব মিনজীরতলা এলাকায় এ মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, রাতে দুর্ঘটনাবশত বাড়ির বৈদ্যুতিক ছেঁড়া তারে হাত দিলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন গৃহবধূ রুবি আক্তার। এ সময় সদ্য আরব আমিরাত ফেরত প্রবাসী স্বামী মো. ফরিদ আহমদ স্ত্রীকে বাঁচাতে এগিয়ে এসে তিনিও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে পড়েন।এলাকাবাসী আহত গৃহবধূ ও তার স্বামীকে উদ্ধার করে বাঁশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসার পথে রুবি আক্তারের মৃত্যু হয়।

বাঁশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক নিগার সুলতানা জানান, বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হওয়ার ঘটনায় রুবি আক্তার নামে এক গৃহবধূকে হাসপাতালে নিয়ে আসার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে। একই সঙ্গে, নিহতের স্বামী ফরিদ আহমদ গুরুতর আহত হন। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় আমরা তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে পাঠিয়ে দিয়েছি।

আরো পড়ুন…দেশে মহামারি করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত মোট রোগীর সংখ্যা আসলে কত? স্বাস্থ্য অধিদফতর ও এর আওতাধীন রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) তথ্য দেখে এখন গণমাধ্যমকর্মীসহ সবার মুখেই এমন প্রশ্ন।গতকাল রোববার (১৬ আগস্ট) অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বলা হয়েছে দুই লাখ ৭৬ হাজার ৫৪৯ জন । ওই বিজ্ঞপ্তির পর আইইডিসিআরের ওয়েবসাইটে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দেখানো হয়েছে দুই লাখ পাঁচ হাজার ৫৭৯ জন। অর্থাৎ স্বাস্থ্য অধিদফতরের প্রদত্ত সংখ্যার সঙ্গে আইইডিসিআরের সংখ্যার ব্যবধান ৭০ হাজার ৯৭০।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *