বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় মেয়র হওয়ার পথে সালমা

জাতীয়

টাঙ্গাইলের মির্জাপুর পৌরসভা নির্বাচনে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় মেয়র হওয়ার পথে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সালমা আক্তার। রোববার মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিনেও অন্য কোনো দল বা স্বতন্ত্র প্রার্থী মেয়র পদে মনোনয়নপত্র জমা না দেয়ায় একক প্রার্থী হিসেবে তার নির্বাচিত হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

সালমা আক্তার শিমুল মির্জাপুর পৌরসভার প্রয়াত মেয়র সাহাদৎ হোসেন সুমনের সহধর্মিণী। রোববার বেলা ১১টার দিকে আওয়ামী লীগ মনোনীত একক প্রার্থী হিসেবে সালমা আক্তার উপজেলা নির্বাচন অফিসারের কার্যালয়ে রিটার্নিং অফিসার ও সিনিয়র জেলা নির্বাচন অফিসার এএইচএম কামরুল হাসানের কাছে তার মনোনয়নপত্র জমা দেন।

এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মীর এনায়েত হোসেন মন্টু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মীর শরীফ মাহমুদ, জেলা পরিষদের সদস্য সাইদুর রহমান খান বাবুল, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শামীমা আক্তার শিফা, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আজাহারুল ইসলাম,

উপজেলা আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক ও বিআরডিবির চেয়ারম্যান জহিরুল হক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাজহারুল ইসলাম শিপলু, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ফরহাদ উদ্দিন আছু, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি হাজী আবুল হোসেন, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক শামীম আল মামুন, যুগ্ম আহ্বায়ক আবিদ হোসেন শান্ত,

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সম্পাদক তাহরীম হোসেন সীমান্ত, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন, সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম সিয়াম প্রমুখ। সোমবার রিটার্নিং অফিসার ও সিনিয়র জেলা নির্বাচন অফিসার এএইচএম কামরুল হাসানের কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র বাছাই হবে। অন্য কোনো মনোনয়নপত্র জমা না হলে একক প্রার্থী হিসেবে সালমা আক্তারকে নির্বাচিত ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছেন সিনিয়র জেলা নির্বাচন অফিসার।

উল্লেখ্য, ১১ ফেব্রুয়ারি মারা যান মির্জাপুর পৌরসভার মেয়র সাহাদৎ হোসেন সুমন। পরে ১ মার্চ মেয়র পদ শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। ১০ অক্টোবর ভোটগ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করে ৭ সেপ্টেম্বর মির্জাপুর পৌরসভার তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। ৮ সেপ্টেম্বর থেকে মনোনয়নপত্র বিতরণ শুরু হয়।

রোববার ছিল মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন। এদিন পর্যন্ত অন্য কোনো দলের প্রার্থী বা ব্যক্তি মেয়র পদে মনোনয়নপত্র জমা দেননি। এতে প্রয়াত মেয়রের স্ত্রী সালমা আক্তারের একক প্রার্থী হিসেবে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় মেয়র নির্বাচিত হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *