বিমান দুর্ঘটনায় অলৌকিকভাবে বেঁচে গেল ৫ জনের একটি পরিবার

জাতীয়

দুবাই থেকে কেরালা ফেরার পথে বিমান দুর্ঘটনার শিকার হয়েছে দুবাইয়ের এক ব্যবসায়ী ও তার পরিবার। তবে অবিশ্বাস্য হলেও তাদের সবাই বেঁচে আছে এবং আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি আছে।৪০ বছর বয়সী সাইফুদ্দিন দুবাইয়ের একজন ব্যবসায়ী। ছেলেমেয়েদের স্কুল বন্ধ খাকায় তার স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে স্বামীর সাথে দেখা করতে দুবাই গিয়েছিলেন। পরে লকডাউনে দীর্ঘ সময় আটকা পড়েন।

শুক্রবার তারা সকলেই এয়ার ইন্ডিয়ার বিমানে করে কেরালার কোজিকোড়ে ফিরে আসছিলেন।পরিবারের পাঁচজনের সবাই আহত হয়েছে। মেয়ে সানা ছাড়া সবাই ভর্তি হয়েছে বেবি মেমোরিয়াল হাসপাতালে। সানা ভর্তি আছে আল শিফা হাসপাতালে। সাইফুদ্দিনের ভাইয়ের ছেলে মুহাম্মদ সালিহ জানান, সাইফুদ্দিন আমার চাচা, তিনি এবং তাঁর পরিবার দুবাই থেকে দেশে ফিরছিল, তখনই দুর্ঘটনার শিকার হয়। আমরা রাত ৮টা নাগাদ জানতে পারি।

এয়ার ইন্ডিয়ার সহযোগী প্রতিষ্ঠান এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসের আইএক্স ১৩৪৪ ফ্লাইটটি দুবাই থেকে করোনা মহামারিতে আটকে পড়া ভারতীয়দের নিয়ে ফিরছিল। শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টা ৪০ মিনিটে কোঝিকোড় বিমানবন্দরে অবতরণের সময় চাকা পিছলে রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়ে সেটি। এখন পর্যন্ত বিমান দুর্ঘটনায় ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে,ভারতের কেরালার রাজ্যের কোঝিকোড়ের কালিকুট আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে শুক্রবার রাতে বিমান দুর্ঘটনার পর হৃদয়বিদারক একটি পারিবারিক সেলফি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। দুর্ঘটনার কয়েক মুহূর্ত আগে স্ত্রী ও কন্যাকে নিয়ে ছবিটি তুলেছিলেন শরিফুদ্দিন। তিনজনেরই মুখে মাস্ক। করোনা থেকে অতিরিক্ত সুরক্ষার জন্য ফেস শিল্ডে মুখ ঢাকা।

ভারতের সংবাদমাধ্যম এই সময়-এর প্রতিবেদনে বলা হয়, দুর্ঘটনায় শরিফুদ্দিন মারা গেছেন। তার স্ত্রীর অবস্থাও আশঙ্কাজনক। হাসপাতালে চিকিত্‍‌‍সাধীন। শিশুটিও চোট পেয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন, তবে সে বেশি আঘাতপ্রাপ্ত হয়নি।জানা গেছে, শরিফুদ্দিন পরিবারসহ কেরালার মাল্লাপুরম এলাকায় থাকতেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *