বেশ্যাকে আবার মডেল বলে : ওমর সানি

জাতীয়

নব্বই দশকের জনপ্রিয় চিত্রনায়ক ওমর সানি। মৌসুমী, শাবনূরের সঙ্গে জুটি বেঁধে তিনি উপহার দিয়েছেন অনেক সুপারহিট সিনেমা।এখন খুব বেশি অভিনয় না করলেও চলচ্চিত্রের বিভিন্ন সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন। তিনি বাংলাদেশ ফিল্ম ক্লাব লিমিটেডের জেনারেল সেক্রেটারির

দায়িত্ব পালন করছেন।জনপ্রিয় এই অভিনেতা ফেসবুকেও বেশ সরব। ওমর সানি তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে আক্ষেপ করে লিখেছেন—‘আজব এক দেশ বাংলাদেশ, বেশ্যাকে বলে মডেল, জুয়াকে বলে ক্যাসিনো, ঘুষকে বলে সেলামি, সুদ হলো ইন্টারেস্ট, সন্ত্রাসী হলো বড় ভাই।’ওমর

সানি দেখতে দেখতে ক্যারিয়ারের ৩০টি বসন্ত পার করেছেন। ‘লাট সাহেবের মেয়ে’, ‘দোলা’, ‘কে অপরাধী’, ‘গরীবের রানী’, ‘হারানো প্রেম’সহ বেশকিছু দর্শকপ্রিয় সিনেমা উপহার দিয়েছেন এই অভিনেতা।অভিনয়ে এখন আর আগের মতো নিয়মিত নন ওমর সানি। মাঝেমধ্যে তার দেখা মেলে রুপালি পর্দায়। স্ত্রী প্রিয়দর্শিনী মৌসুমী ও পুত্র-কন্যা নিয়ে সুখের সংসারেই কেটে যাচ্ছে তার দিন।

আরও পড়ুন=ফেসবুকে অভিনেত্রী রাফিয়াত রশিদ মিথিলা ও নির্মাতা ইফতেখার আহমেদ ফাহমীর অন্তরঙ্গ মুহূর্তের কিছু ছবি ভাইরাল হওয়ার পর এ নিয়ে চলে নানা বিতর্ক।কেউ ফাহমী-মিথিলাকে এক হাত নিলেও অন্যরা বলছেন, কারো ব্যক্তিগত বিষয় ফাঁস এবং তা নিয়ে হইচই করা স্বাভাবিক আচরণ নয়।এমন আলোচনার মধ্যে অভিনেত্রী সাদিয়া জাহান প্রভাও তার ফেসবুক একাউন্টে একটি পোস্ট দেন।

তাতে তিনি লিখেছেন, ‘কারো ব্যক্তিগত মুহূর্তের ছবি শেয়ার বা পোস্ট করা, এথিকালি কোন রাইট আপনি রাখেন না; বিকৃত মানসিকতার আমূল পরিবর্তন হোক….’।হাজার দেড়েক মানুষ তাতে রিয়েকশন দেয়ার পর অবশ্য নিজের পোস্টটি তিনি সরিয়ে ফেলেন।

শুধু প্রভা নন, আরও সাধারণ ফেসবুক ব্যবহারকারীদের অনেকেই মনে করছেন কারো ব্যক্তিগত মুহূর্তের ছবি বা ভিডিও অনুমতি ছাড়া প্রকাশ করা আইনগত দণ্ডনীয়। এসব ছবি নিয়ে যারা অতি মাত্রায় আগ্রহ প্রকাশ করছেন তাদেরও সমালোচনা হচ্ছে সামাজিক মাধ্যমরুপ্রসঙ্গত, একটি ফেসবুক গ্রুপ থেকে মিথিলা-ফাহমির ছবিগুলো ছাড়া হয়। এরপর সেখান থেকে ছবিগুলো দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *