ভালো ফলাফলের লোভ দেখিয়ে ছাত্রদের নিজ বাড়িতে ডেকে নিয়ে যা করাতেন শিক্ষিকা

জাতীয়

পাস করতে চাও? তাহলে অবসরে আমা’র বাসায় এসো।’ এভাবেই ছাত্রদের নিজের বাড়িতে ডেকে নিতেন এক স্কুল শিক্ষিকা। যে ছাত্র বাসায় যেতে রাজি হন না, তাকে ফেল করিয়ে দিতেন তিনি। ঘটনাটি ঘটেছে কলম্বিয়ায়। খবর ডেইলি মেইল।ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যমটির প্রতিবেদনে বলা হয়, ওই শিক্ষিকার নাম ইওকাসতা। বয়স চল্লিশেরও বেশি। ওই শিক্ষিকা শুধু পাস করানোর জন্যই নয়, ভালো ফলাফলের লো’ভ দেখিয়েও

ছাত্রদের বাড়িতে ডেকে নিতেন। রাজি না হলে ফেল করিয়ে দেয়ার ভয় দেখাতেন তিনি।শুধু তাই নয়, ছেলেদের ওয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টে গভীর রাতে ওই শিক্ষিকা যেসব ছবি পাঠাতেন তা অবশ্য বর্ণনার যোগ্য নয়। শিক্ষিকার এই অনাচার এক ছাত্রের মাধ্যমে প্রকাশ পায়। ঘটনা প্রকাশের

পর ইওকাসতার স্বামী তাকে ডিভোর্স দিয়ে দিয়েছেন।মানুষের কাছে সবচেয়ে বড় স’ম্পর্ক হল সন্তান ও পিতামাতার স’ম্পর্ক। সেই স’ম্পর্কে কোন রকমের দাগ থাকে না এবং পৃথিবীর অন্যান্য যেকোন স’ম্পর্কের থেকে সেই স’ম্পর্ককে বেশী পবিত্র বলে মানা হয়।

গোটা বিশ্বজুড়ে এই নিষ্পাপ এবং হৃদয়ের স’ম্পর্কের অনেক উদাহ’রণ পাওয়া যায়। গুগলে খুঁজলেও দেখা যায় বাবা মা এবং ছে’লের মধ্যে অনেক ম’র্মস্প’র্শী স’ম্পর্কের গল্প।কথায় আছে ছে’লের কাছে পিতা মাতা স্বর্গের সমান এবং এই ব্যাপার অমান্য করলে সন্তানকে হতে হয় পাপের ভাগীদার। নরকে তার জন্য আলাদা শা’স্তির ব্যবস্থা থাকে। এইরকম অনেক কথা শুনতে পাই আম’রা।আম’রা সাধারণত বাবা ছে’লেকে

নিয়ে যেসমস্ত ভিডি দেখি অথবা যেসমস্ত খবর পড়ি তারা সকলেই একবাক্যে এই স’ম্পর্ককে এক আলাদা মাত্রা দিয়েছে। কিন্তু আম’রা ভুলে যাই যে এই পৃথিবী এত ভালো নয়।শুধুমাত্র সাদা দিয়ে একটা গোটা পৃথিবী তৈরি হলে অনেক নির্ঝঞ্ঝাট এবং শান্তি পূর্ণ হত। মানুষের মনের ভিতর বাস করে এক কালো সত্ত্বা। সে শুধু অন্ধকার চেনে। ভালো কি বস্তু সে জানে না একেবারেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *