মধ্যবিত্তদের জন্য আবারো এল দারুণ সুখবর ৫০ হাজারে এসে ঠেকেছে সোনার দাম

জাতীয়

মহামারী করোনা ভাইরাসে বিশ্বের অর্থনীতি যে ক্ষতির মুখে পড়েছে সেটা কাটিয়ে উঠতেই মূলত আন্তর্জাতিক বাজারে বেড়েছে সোনার দাম। গত দুই মাস ধরে বাড়তে থাকা সোনার দর এবার কিছুটা কমতির দিকে রয়েছে। যার প্রভাব পড়েছে ভারতের বাজারেও।গত শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) সোনার দর এক শতাংশ কমে গিয়েছে।

রয়টার্সে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে জানানো হয় সোনার দড় কমে যাওয়ার এই খবর। সেই প্রতিবেদনটিতে রয়টার্স জানায়, প্রতি আউন্স সোনার দাম কমে গিয়েছে ১৯৪১ ডলার পর্যন্ত।

গত কিছুদিন ধরেই ধারাবাহিকভাবে সোনার দরপতন হচ্ছে। এই অবস্থা আরও বেশ কিছুদিন বজায় থাকবে বলেও ধারনা করছেন বিশেষজ্ঞরা। সহসাই সোনার মূল্য বৃদ্ধি পাবার সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছেন বাজার বিশেষজ্ঞরা। তবে বর্তমানে এই মূল্য হ্রাসের ধারাবাহিকতা বজায় থাকলেও বছরের একদম শেষের দিকে আবারও চড়া হতে পারে বাজার এমনটাই ধারনা করা হচ্ছে।

অন্যদিকে সিটি গ্রুপ তাদের একটি রিপোর্টে জানিয়েছে সোনার দাম যদি বাড়ে তাহলে সেটা সর্বোচ্চ ৩০ শতাংশ বাড়তে পারে। আর কমলে সেটার পরিমাণ হতে পারে ২০ শতাংশ। অর্থাৎ, যদি সোনার মূল্য বৃদ্ধি পায় তাহলে প্রতি আউন্সে দাম বাড়বে ২২৭৫ ডলার এবং কমলে প্রতি আউন্সে কমবে ১৬০০ ডলার।

গত এক মাসে দেশের বাজারেও সোনারব দাম টানা কমতির দিকেই রয়েছে। আগস্ট মাসের ১০ তারিখে প্রতি ১০ গ্রাম সোনার দাম যেখানে ছিল ৫৬,২০০ টাকা তা চলতি মাসে এসে ঠেকেছে ৫২ হাজার টাকায়। এক মাসের ব্যবধানে সোনার মূল্য কমেছে ৪ হাজার টাকা।

সবশেষ শুক্রবারে পাওয়া খবর অনুযায়ী ৯৯.৯ শতাংশ ১০ গ্রাম সোনার মূল্য ৫২,৬৪৩ টাকা থেকে কমে দাড়িয়েছে ৫২,৪৫২ টাকা। শুধু তাই নয়, দর কমেছে রুপোরও। এক কিলোগ্রাম রুপোর দাম ৭০,৪৪৩ টাকা থেকে কমে এসে দাড়িয়েছে ৬৯,৯৫০ টাকায়। অর্থাৎ প্রতি কিলো রুপোর মূল্য কমেছে ৯৯০ টাকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *