ম’নোবিজ্ঞানীদের গ’বেষণায় মু’সলমানরাই সবচেয়ে বেশি সু’খী মা’নুষ !

জাতীয়

ম’নোবিজ্ঞানীদের গ’বেষণায় মু’সলমানরাই সবচেয়ে বেশি সু’খী মা’নুষ !যু’ক্তরাজ্যভিত্তিক ডেইলি মেইলের ত’থ্য মতে জানা যায়, সু’খী মানুষ হিসেবে শী’র্ষস্থানে রয়েছে মু’সলিমরা।পৃ’থিবীর সবচেয়ে সু’খী মানুষ হিসেবে গবে’ষণায় ওঠে এসেছে মু’সলিম’দের নাম। এরপর যথাক্রমে খ্রিষ্টান, বৌদ্ধ ও হিন্দুরা।আর যারা কোনো ধর্মে বিশ্বাস করে না তথা না’স্তিকরা হচ্ছে পৃ’থিবীর সবচেয়ে অ’সু’খী মানুষ। পৃথিবীর সবচেয়ে সু’খী মানুষ নির্ণয়ের এ গবে’ষণাটি যুক্তরাষ্ট্রের সা’ইকোলজিক্যাল অ্যা’সোসিয়েশনের জা’র্নালে প্রকাশিত হয়। যুক্ত’রাজ্যভিত্তিক ডেইলি মেইলের বরাতে জানা

যায়, জার্মানির ম্যানহেইম বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক সু’খী মানুষের চিত্র তুলে ধরতে ৬৭ হাজার ৫৬২ জন মানুষের ও’পর জরিপ চালায়। আর এ জরিপের আলোকে মু’সলিমরাই হলো পৃথিবীর সবচেয়ে সু’খী মানুষ।গবে’ষণা প্রতিবেদনে সু’খী হওয়ার উপায় সম্প’র্কে বলা হয়, ‘মু’সলমানদের এক আল্লাহর ও’পর দৃঢ় বিশ্বাসই তাদেরকে কোনো হ’তাশা ও উ’দ্বেগ স্পর্শ করতে পারে না।আবার মু’সলিমরাই মানুষের প্রতি সবচেয়ে বেশি স’হনশীল।

কুরআন এবং হাদিসের নির্দেশনাও হলো মানুষের প্রতি সহনশীল হওয়া। আর এসব কারণে মু’সলিম’দের মধ্যে আ’ত্মহ’ত্যা,হ’তাশা ও উ’দ্বেগ প্রবণতা অন্যদের তুলনায় অনেক কম।এ গবে’ষণার ফলাফল ও জরিপে নেতৃত্ব দেন জার্মানির ম্যা’নহেইম বি’শ্ববিদ্যালয়ের সাইকোলজিস্ট ড. লরা ম্যারি এডিনগার-স্কন্স। গবে’ষণা একটি বি’ষয় সু’স্পষ্টভাবে ফুটে ওঠেছে যে, মানুষের সন্তুষ্টি ও আত্ম-তৃ’প্তির স’ঙ্গে একত্ববাদের এক গভীর সম্প’র্ক রয়েছে।এক’ত্ববাদ মানুষকে উদার, মানবিক ও ত্যাগী হতে উদ্বুদ্ধ করে। আর মু’সলিম’দের মধ্যে ধর্মের প্রভাব সবচেয়ে বেশি কার্যকর। যে কোনো কাজের ক্ষেত্রে আল্লাহ ভ’য়ই মানুষকে জবাব দিহিতার দায়িত্ববোধ জাগিয়ে তোলে।

তাই মু’সলমানরা সাধারণত অন্যা’য় ও অ’পরাধমূ’লক কাজ থেকে বি’রত থাকে। আর এটিই তাদেরকে বিশ্বব্যাপী সু’খী মানুষ হতে কার্যকরী ভূমিকা পালন করে উল্লেখ্য যে, ২০১৬ সালে পিও গবে’ষণা কেন্দ্রের এক ত’থ্যেও ধর্মের প্রতি আন্তরিক সুসম্প’র্ক ও সহনশীলতায় মানুষের সু’খী হওয়ার বি’ষয়টি ওঠে আসে। প্রকৃত অর্থেই ইসলাম হলো শান্তির ধর্ম। দুনিয়ার সবচেয়ে বেশি সু’খ ও শান্তি রয়েছে এক’ত্ববাদে বিশ্বাসী ধর্ম ইসলামে। ব্রিটেনের ‘ডেইলি মেইল’ এক প্রতিবেদনে জানায়, জা’র্মানির ম্যান হেইম বিশ্ববিদ্যালয়ের গবে’ষণাটি যুক্তরাষ্ট্রের সাইকোলজিক্যাল অ্যা’সোসিয়েশনের জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে।

গবে’ষণা প্রতিবেদনে বলা হয়, আল্লাহর একত্ববাদ আর আল্লাহর ও’পর দৃঢ় বিশ্বাস মু’সলিম’দেরকে প্রভাবিত করায় হতাশা ও উ’দ্বেগ তাদেরকে খুব একটা গ্রাস করতে পারে না। মানুষের প্রতি মু’সলিম’দের সহানুভূতি অনেক বেশি। এ কারণেই তাদের মধ্যে আ’ত্মহ’ত্যার প্রবণতা অনেক কম। ম্যানহেইম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাইকোলজিস্ট ড. লরা ম্যারি এডিনগার-স্কন্স এ গবে’ষণার ফলাফল তৈরি করেন।

ন্তুষ্টির স’ঙ্গে একত্ববাদের সরাসরি সম্প’র্ক আছে। ধর্মসংক্রান্ত মনস্তাত্ত্বিক জ্ঞানের ক্ষেত্রকে আরো প্রসারিত করেছে এ একত্ববাদ। মু’সলিম’দের সন্তুষ্টিতে ধর্মের প্রভাবের বি’ষয়টি আরো বেশি প্রভাব বিস্তার করে। মু’সলিম’দের মনে আল্লাহর ভ’য় বদ্ধমূ’ল থাকে। এ জন্য তারা বহুবিধ পাপা’চার থেকে বি’রত থাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *