মসজিদে বি`স্ফোরণে নি`হ`তদের পরিবার পাবেন যত টাকা,

জাতীয়

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার পশ্চিম তল্লা বাইতুস সালাত জামে মসজিদে এসি বি`স্ফোরণের ঘ`টনায় শেখ হাসিনা বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শিশু-মুয়াজ্জিনসহ ১১ জন মা`রা গেছেন। এছাড়া চিকিৎসাধীন ২৬ জনের অ`বস্থাও সং`কটাপন্ন। শনিবার (৫ সেপ্টেম্বর) ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের পু`লিশ ফাঁ`ড়ির ই`নচার্জ পু`লিশের প`রিদর্শক বাচ্চু মিয়া এ তথ্য জানান।

নি`হ`তরা হলেন, মুয়াজ্জিন দেলোয়ার হোসেন, শিশু জুয়েল, সাব্বির, জামাল, জুবায়ের, হুমায়ুন কবির, মোস্তফা কামাল, ইব্রাহিম, রিফাত, জুনায়েদ এবং কুদ্দুস বেপারী।এদিকে মসজিদে এসি বি`স্ফোরণে `হ`তাহ`তের ঘট`নায় দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দ`গ্ধদের স`র্বোচ্চ চিকিৎসা সেবা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।এ ঘ`টনায় জেলা প্রশাসনের ৫ স`দস্যের ত`দন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। নি`হ`তদের পরিবার প্রতি ২০ হাজার টাকা ও আ`হ`তদের ১০ হাজার টাকা প্রদান করা হবে।

আরও পড়ুনঃচিত্রনায়িকা সাদিকা পারভীন পপি করোনা জয় করেছেন। ২২ জুলাই জনপ্রিয় এ নায়িকার দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছিল। প্রায় একমাস বাসায় থেকে চিকিৎসা নেয়ার পর তিনি আরোগ্য লাভ করলেন।বর্তমানে পপি ভালো আছেন। তিনি জানান, দু-দফায় করোনার রেজাল্ট নেগেটিভ পেয়েছেন। পপি বলেন, এখন সম্পূর্ণ সুস্থ। মাঝেমধ্যে শরীর দুর্বল লাগে।

চিকিৎসকের পরামর্শে ভিটামিন ও পুষ্টিকর খাবার খাচ্ছি।‘শুরুতে শ্বাসকষ্ট হতো। ভেবেছিলাম মরেই যাবো! ভয়ে মাঝেমধ্যে ভেঙে পড়তাম। পরেই সবার মানসিক সাপোর্ট মনোবল শক্ত করে সার্বক্ষণিক চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে ঔষধ নিয়েছি। মানুষের দোয়ায় ও আল্লাহর অশেষ রহমতে সুস্থ হয়ে উঠছি।এ যাত্রায় বড় বাঁচা বেঁচেছি।’আক্রান্ত হওয়ার সময় পপি ছিলেন খুলনায়, তার নিজ বাড়ি খালিশপুর।

করোনার আগে সেখানে বেড়াতে গিয়ে লকডাউনে আকটে যান পপি। ওই সময়ই পপি স্থানীয় মানুষদের ত্রাণ দিতে ছুটেছেন শহরের এমাথা ওমাথা।তিনি বলেন, মানুষকে সাহায্য করতে গিয়ে নিজেই করোনা আক্রান্ত হয়েছিলাম।তবে করোনা ধকল কাটিয়ে সম্প্রতি পপি ঢাকায় ফিরেছেন। নগরীর ইস্কাটনের বাসায় তিনি সম্পূর্ণ বিশ্রামে আছেন। বলেন, পাঁচ মাস ঢাকার বাসায় ছিলাম না। ধুলো-ময়লা পড়ে যা তা অবস্থা হয়েছে। সব পরিষ্কার করছি। এই মুহূর্তে কাজে ফেরার ইচ্ছে নেই। দুটি ছবি ও বিজ্ঞাপনের প্রস্তাব পেলেও না করে দিয়েছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *