মা`দক ব্য`বসায়ীর গানের আসরে রাতভর পু`লিশ কর্ম`কর্তার নাচ

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার চিহ্নিত ই`য়াবা ব্যবসায়ী ও এ`কাধিকবার মা`দক মা`মলায় গ্রে`ফতার হওয়া ব্যক্তির সঙ্গে একটি বাড়িতে ‘গানের আসর’ বসিয়ে রাতভর নেচে-গেয়ে ফু`র্তিতে মেতেছেন পুলিশের দুই কর্মকর্তা।ই`য়াবা ব্যবসায়ীর ওই আসরে গানের তালে তালে নেচেছেন আড়াইহাজার থানা পু`লিশের সহ`কারী উপপরিদর্শক (এএসআই) অজিত `চন্দ্র বিশ্বাস। তার সঙ্গে ছিলেন চিহ্নিত ইয়াবা ব্যবসায়ী আল আমিন।

নাচের পুরো অনুষ্ঠানটি নিজের ফেসবুক থেকে লাইভ করেছেন আড়াইহাজার থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) সজীব সরকার।বৃহস্পতিবার (২৬ ডিসেম্বর) রাতে আড়াইহাজার উপজেলার একটি বাড়িতে এ নাচ-গানের আসর বসে। এরই মধ্যে পুলিশ কর্মকর্তার নাচের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। এ নিয়ে উপজেলাজুড়ে সমলোচনার ঝড় ওঠে।খোঁজ নিয়ে জানা যায়, আড়াইহাজার উপজেলার একটি বাড়িতে গানের আসর বসানো হয়। সেখানে হাতেগোনা কয়েকজন ব্যক্তি ছিলেন।

তারা সবাই একে-অপরের ঘনিষ্ঠ। গানের আসরে চলে নাচ। গানের তালে চলে মাদক সেবন ও ধূমপান।এসআই সজীব সরকারের ফেসবুক থেকে লাইভ করা ভিডিওতে দেখা যায়, এসআই সজীব সরকার গান ও নাচের অনুষ্ঠানের লাইভ করছেন। তার পাশেই বসা উপজেলার চিহ্নিত ইয়াবা ব্যবসায়ী আল আমিন। শিল্পীর গানের তালে তালে নাচছেন একই থানা পুলিশের এএসআই অজিত চন্দ্র বিশ্বাস।এলাকাবাসী জানায়, চিহ্নিত ইয়াবা ব্যবসায়ী আল আমিন উপজেলার বিশনন্দী গ্রামের বাসিন্দা। তার বি`রুদ্ধে একাধিক মা`দক মা`মলা রয়েছে। আল আমিন উপজেলার চিহ্নিত মা`দক ব্যবসায়ী।

অথচ আল আমিনের সঙ্গে আসর বসিয়ে আড়াইহাজার থানা পুলিশের দুজন কর্মকর্তা নেচে-গেয়ে ফুর্তি করেছেন। একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীর সঙ্গে বসে পুলিশের ক`র্মকর্তারা ফুর্তি করলে এলাকায় মাদক বিক্রি বাড়বে, মাদক ব্যবসায়ীরা বীরদর্পে ঘুরে বেড়াবে। পুলিশের সঙ্গে মা`দক ব্যবসায়ীর সখ্যতা কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না।এ বিষয়ে আড়াইহাজার থানা পুলিশের সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) অজিত চন্দ্র বিশ্বাস বলেন, আসলে আমি জানতাম না ওই আসরে যারা আছেন তাদের মধ্যে মা`দক ব্যবসায়ীও রয়েছেন। মূলত আমরা গানের অনুষ্ঠানে গিয়েছিলাম।

অনুষ্ঠানে মা`দক ব্যবসায়ী আছে জানলে সেখানে যাওয়ার তো দূরের কথা; অবশ্যই মাদক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতাম।জানতে চাইলে আড়াইহাজার থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) সজীব সরকার বলেন, আমি আসলে গানের অনুষ্ঠানে গিয়েছিলাম। সেখানে অনেকেই এসেছেন, তাই আমিও গেছি। আমি সবাইকে চিনি না। আমি এই থানায় নতুন। সবাইকে চেনার কথাও না। আমি কোনোদিন সিগারেটও খাইনি। বিষয়টি থানা ও আমার পরিচিত সবাই জানেন।

Leave a Comment