মালয়েশিয়ায় মাত্র তিনটি খাতে কাজ করতে পারবেন বিদেশি শ্রমিকরা,দেখে নিন এক নজরে

আন্তর্জাতিক

বিদেশি শ্রমিকদের কাজের জন্য মাত্র তিনটি সেক্টর খোলা রাখছে মালয়েশিয়া। এখন থেকে শুধু নির্মাণ কাজ, কৃষিকাজ এবং বৃক্ষায়ণ বা বাগানের কাজে বিদেশি শ্রমিকদের নিয়োগ করবে তারা। বাকি যেসব কাজ থাকবে, তাতে কাজ করবেন মালয়েশিয়ানরাই। করোনা ভাইরাস সংক্রমণ অন্য দেশের মতো মালয়েশিয়ায়ও অর্থনীতির মারাত্মক ক্ষতি করেছে।

এ ছাড়া মুভমেন্ট কন্ট্রোল অর্ডারের (এমসিও) ফলেও অর্থনীতি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সেই ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে সরকার এমন সিদ্ধান্ত নিচ্ছে। এ খবর দিয়েছে মালয়েশিয়ার অনলাইন মালয় মেইল। বুধবার দেশটির পার্লামেন্ট দেওয়ান রাকায়েতে এ তথ্য দিয়েছেন মানবসম্পদ বিষয়ক উপমন্ত্রী আওয়াঙ্গ সোলাহুদিন।তিনি পার্লামেন্টে বলেছেন, শুধু নির্মাণ খাত, কৃষি খাত এবং প্লান্টেশন খাতে বিদেশি শ্রমিকদের নিয়োগ করা যাবে।

অন্য যেসব সেক্টর আছে তা স্থানীয় শ্রমিকদের দিয়ে পূরণ করতে হবে। বিদেশি শ্রমিক কমিয়ে আনার গাইডলাইন অনুসারে এটা করা হবে।বর্তমানে এই তিনটি খাত ছাড়াও উৎপাদন শিল্প ও সেবাখাতেও বিভিন্ন কাহ করার অনুমতি রয়েছে বিদেশি শ্রমিকদের। এসব কাজকে নোংরা, বিপজ্জনক ও থ্রিডি প্রকৃতির কঠিন কাজ মনে করে স্থানীয়রা তা করতে প্রত্যাখ্যান করেন।তা ছাড়া এসব সেক্টরে বেতন কম।

এজন্য স্থানীয়রা এসব কাজ করতে রাজি হন না বলে বিদেশি শ্রমিকরা এতে যুক্ত। স্থানীয় অনেক শ্রমিক মনে করেন, থ্রিডি প্রকৃতির যেসব কাজ তার সময় ও তাতে যে পরিশ্রম হয় তাতে উপযুুক্ত বেতন দেয়া হয় না।

আরো পড়ুন…হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরসহ দেশের অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক সব বিমানবন্দরে যাত্রীদের আগামী ১ আগস্ট থেকে যাত্রী নিরাপত্তা ও বিমানবন্দর উন্নয়ন ফি দিতে হবে। ২২ জুলাই বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করেছে।তবে এ বাড়তি ফি এর উপর ভ্যাট (মূসক) দিতে হবে। ২৮ জুলাই জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এ সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করেছে। ফলে বিমানে চড়তে যাত্রীদের মূসকসহ ১০৭৪.৬১ টাকা বাড়তি অর্থ গুনতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *