মৃ`ত্যুর আগে আইরিনকে যা বলতে চেয়েছিলেন জনপ্রিয় অভিনেতা সাদেক বাচ্চু?

জাতীয়

ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেতা সাদেক বাচ্চু মারা গেছেন। রাজধানীর মহাখালীর ইউনিভার্সাল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টা ০৫ মিনিটে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।চলতি মাসে সাদেক বাচ্চু ফোন করে চিত্রনায়িকা আইরিন সুলতানার সাথে কথা বলতে চেয়েছিলেন। আইরিন সুলতানা বলেন, ‘এই তো কয়েকদিন আগে গত ৪ সেপ্টেম্বর সাদেক বাচ্চু আংকেল আমাকে ফোন দিয়েছিলেন।

তখন আমি বাইরে ছিলাম, তখন আংকেলকে বলি বাসায় গিয়ে ফোন দেব। কিন্তু বাসায় ফিরতে অনেক রাত হওয়ায় আর ফোন দিতে পারিনি। তার পরদিনও ফোন দেওয়া হলো না। পরে আমি যখন ফোন দিলাম, তখন তিনি হাসপাতালে। কিন্তু উনি আমাকে কী বলতে চেয়েছিলেন তা আমার মনে প্রশ্নই থেকে গেল।

এখন আফসোস লাগছে, এই আফসোসটাই সারাজীবন থাকবে।’আইরিন জানান, সাদেক আংকেল অসুস্থ হওয়ার আগে মাঝেমধ্যে কথা হতো উনার সাথে। গত বছরের নভেম্বরে মুক্তি পায় পদ্মার প্রেম। এটা জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের জন্য জমা দেওয়া হয়। এ চলচ্চিত্রের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা হতো।

করোনার সময়ে অনেক কথা হয়েছে।আইরিন সুলতানা সাদেক বাচ্চুর সাথে ‘ভালোবাসা জিন্দাবাদ’ সিনেমার মাধ্যমে প্রথম অভিনয় করেন একসাথে। এ ছবিটিতে বাবা ছিলেন সাদেক বাচ্চুর। এরপর পদ্মার প্রেমসহ আরো দুটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন আইরিন। যার প্রতিটি ছবিতেই বাবার চরিত্রে অভিনয় করেছেন এই অভিনেতা।প্রসঙ্গত, ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেতা সাদেক বাচ্চু সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টা ৫ মিনিটে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

দীর্ঘ ক্যারিয়ারে পাঁচ শতাধিক সিনেমায় অভিনয় করা সাদেক বাচ্চু ঠাণ্ডা-জ্বরে আক্রান্ত হয়ে গত ৬ সেপ্টেম্বর রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। এরপর ১১ সেপ্টেম্বর তার করোনা পরীক্ষার ফল পজিটিভ আসে। একদিন পর অবস্থার অবনতি হলে তাকে মহাখালীর ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে তিনি কোভিড ইউনিটের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *