শিক্ষার্থীদের সঙ্গে শিক্ষকদের ফোনে নিয়মিত যোগাযোগ রাখার নির্দেশ

জাতীয়

এবার শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের ফোন করে পড়ালেখা সংক্রান্ত বিষয়ে মোবাইলফোনে নিয়মিত যোগাযোগ রাখতে শিক্ষকদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সংসদ বাংলাদেশ টেলিভিশনের ক্লাসে নিয়মিত যুক্ত থাকা এবং পড়ালেখা বিষয়ে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সঙ্গে টেলিফোনে যোগাযোগ করতেও নির্দেশনা দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি)।গতকাল সোমবার এ-সংক্রান্ত নির্দেশনা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধানদের কাছে পাঠানো হয়েছে।

মাউশি থেকে পাঠানো নির্দেশনায় বলা হয়েছে, সংসদ টিভিতে চলমান ক্লাস নিয়মিত দেয়া ও অনলাইনে পাঠদানের বিষয়ে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সঙ্গে শিক্ষকদের মুঠোফোনে যোগাযোগ করতে হবে। শিক্ষকদের সঙ্গে পাঠদানের বিষয়ে টেলিফোনে যোগাযোগ করতে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের উদ্বুদ্ধ করতে হবে।চিঠিতে আরও বলা হয়,

টেলিফোনে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে যোগাযোগের বিষয়টি সমন্বয় ও মনিটরিং করবেন প্রধান শিক্ষক। শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের নিয়ে প্রধান শিক্ষক ও সহকারী প্রধান শিক্ষক ভার্চুয়াল সভা আয়োজন করবেন। এক্ষেত্রে একদিনে এক শ্রেণিকে সম্পৃক্ত করা যেতে পারে।এ নির্দেশনা সব সরকারি-বেসরকারি স্কুলের প্রধান শিক্ষকদের কাছে পাঠানো হয়েছে।

এতে মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের শিক্ষাকার্যক্রম তদারকি করতে শিক্ষকদের কিছু নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।একইসাথে পিছিয়ে পড়া শিক্ষার্থীদের পাঠদানে সহয়তা করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আর শিক্ষার্থীদের সাথে শিক্ষকের টেলিফোনে যোগযোগের বিষয়টি সমন্বয় করতে প্রতিষ্ঠান প্রধানকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন=গত এক সপ্তাহে নিত্যপ্রয়োজনীয় ছয়টি পণ্যের দাম বেড়েছে বলে সরকারি প্রতিষ্ঠান ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) প্রতিবেদনে উঠে এসেছে। এর মধ্যে রয়েছে- মসুর ডাল, আলু, পেঁয়াজ, রসুন, আদা ও ব্রয়লার মুরগি। বিপরীতে মোটা চাল, আটা, জিরা, দারুচিনি, এলাচ, ধনে ও তেজপাতা এই সাতটি পণ্যের দাম কমেছে বলে জানিয়েছে সরকারি এই প্রতিষ্ঠানটি। রাজধানীর শাহজাহানপুর, মালিবাগ বাজার, কারওয়ানবাজার, বাদামতলী বাজার,

সূত্রাপুর বাজার, শ্যাম বাজার, কচুক্ষেত বাজার, মৌলভী বাজার, মহাখালী বাজার, উত্তরা আজমপুর বাজার, রহমতগঞ্জ বাজার, রামপুরা এবং মিরপুর-১ নম্বর বাজারের পণ্যের দামের তথ্য নিয়ে এই প্রতিবেদন তৈরি করেছে টিসিবরুপ্রতিষ্ঠানটির তথ্য অনুযায়ী, গত এক সপ্তাহে সব থেকে বেশি দাম বেড়েছে আমদানি করা পেঁয়াজের। পণ্যটির দাম এক লাফে ৩৮ দশমিক ৪৬ শতাংশ বেড়ে কেজি ৪০ থেকে ৫০ টাকা বিক্রি হচ্ছে, যা আগে ছিল ৩০ থেকে ৩৫ টাকা।

বড় অঙ্কের দাম বেড়েছে দেশি পেঁয়াজেরও। ২৯ দশমিক ৪১ শতাংশ বেড়ে দেশি পেঁয়াজের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৬০ টাকা।তরকারি রান্নার অপরিহার্য আরেক পণ্য রসুনের দামও হু হু করে বাড়ছে। সপ্তাহের ব্যবধানে দেশে রসুনের দাম ২৯ দশমিক ৪১ শতাংশ বেড়েছে। এতে পণ্যটির কেজি বিক্রি হচ্ছে ১০০ থেকে ১২০ টাকা। আর আমদানি করা রসুনের দাম ৩ দশমিক ৪৫ শতাংশ বেড়ে কেজি ৭০ থেকে ৮০ টাকা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *