শেষ ২৪ ঘন্টায় বাংলাদেশে করোনায় আরও ৩৯ জনের মৃত্যু

জাতীয়

দেশে গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে ২ হাজার ৯০৭ জনের দেহে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত করা হয়েছে। ১২ হাজার ৮৪৯টি নমুনা পরীক্ষা করে এই সংখ্যা পাওয়া যায়। শনাক্তের হার ২২.৬২ শতাংশ।একই সময়ে প্রাণঘাতী ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন আরও ৩৯ জন। এনিয়ে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে প্রাণহানি হলো মোট ৩ হাজার ৪৩৮ জনের।মারা যাওয়া ৩৯ জনের মধ্যে ৩৫ জন পুরুষ আর ৪ জন নারী।

যারা মারা গেছেন, তাদের মধ্যে ঢাকা বিভাগের ১২ জন, খুলনা বিভাগের ৬ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের ৭ জন, রাজশাহী বিভাগের ৮ জন, রংপুর বিভাগের ১ জন, বরিশাল বিভাগের ২ জন এবং ময়মনসিংহ বিভাগের ৩ জন। ৩৯ জনের মধ্যে হাসপাতালে মারা গেছেন ৩১ জন এবং বাড়িতে মারা গেছেন ৮ জন।সোমবার দুপুরে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত

মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা এই তথ্য জানান।গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয় এবং ১৮ মার্চ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। এরপর থেকে করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা লাফিয়ে বাড়ছে।

আরও পড়ুন=আরও পড়ুন= করোনাভাইরাসের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত সারাবিশ্ব। এমন পরিস্থিতে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের অর্থ সহায়তা দিচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক। তবে এই অর্থসহায়তা পাওয়ার জন্য রয়েছে কিছু শর্ত রয়েছে। এই সহায়তা পাওয়ার আবেদন করতে হবে ৫টি ধাপে কিছু প্রশ্নের উত্তর দেয়া ও ডকুমেন্টস প্রদানের মাধ্যমে। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য কিছু বিষয় হচ্ছে:

১. অন্তত ২ থেকে ৫০ জন কর্মী থাকতে হবে।২. ব্যবসায়ের বয়স হতে হবে কমপক্ষে এক বছর।৩. করোনাকালে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে এমন প্রমাণ থাকতে হবে।৪. আপনার ব্যবসায় সম্পর্কে ফেসবুক খোঁজ খবর রাখতে পারবে এমন যোগাযোগ ব্যবস্থা থাকতে হবে।৫. আবেদনের জন্য

ফেসবুকে বিজনেস পেজ একটি ভেরিফাইড ই-মেইল থাকতে হবে।৬. থাকতে হবে ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের নির্দিষ্ট কার্যালয়।৭. শুধুমাত্র অনলাইনে কার্যক্রম থাকলে আবেদন গ্রহণযোগ্য হবে না।৮. থাকতে হবে ব্যবসায়ের লাইসেন্স।৯. অফিসিয়াল রেজিস্ট্রেশানর১০. অংশিদারি ব্যবসায়ের ক্ষেত্রে পার্টনারশিপ লাইসেন্স।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *