স্বামীকে তা’লাক দিলেন ন’ববধূ, ফেসবুক প্রে’মিকের বাড়িতে গিয়ে অনশনে

অপরাধ

ময়মনসিংহ জেলার তারাকান্দা উপজেলায় বি’য়ের দা’বিতে তিন দিন ধরে অনশন করছেন এক কলেজছাত্রী। জানা যায়, উপজেলার কামারগাঁও ইউনিয়নের ভেরুয়া গ্রামের আবুচানের ছেলে প্রে’মিক সাদ্দাম হোসেনের বাড়িতে গত রবিবার দুপুর থেকে অনশন শুরু করছেন ওই ছাত্রী। বিয়ের দাবিতে অনশনে বসা তরুণী তারাকান্দা বঙ্গবন্ধু ডিগ্রি কলেজের ডিগ্রি প্রথম বর্ষের ছাত্রী।

অনশনে থাকা ওই শিক্ষার্থী জানান, তিন বছর ধরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পরিচয় হয় সাদ্দামের সাথে। মোবাইলের মাধ্যমেই তার সাথে কথাবার্তার এক পর্যায়ে গভীর স’ম্পর্ক প্রে’মে প’রিণত হয়। ওই শিক্ষার্থী জানান, হঠাৎ আমার পরিবার অন্য জায়গায় বি’য়ে দেন আমার ই’চ্ছার বি’রুদ্ধে। এতে সাদ্দাম আরো বে’পরোয়া হয়ে ওঠেন। মোবাইলে কান্নাকাটি করে সাদ্দাম আমাকে একদিনও সং’সার করতে দেয়নি।

তার কথায় ওই স্বামীকে তা’লাক দিতে বা’ধ্য হই।গত কয়েক মাস ধরে তার সাথে বেশ কয়েকবার শা’রীরিক স’ম্পর্ক হয়েছে আমার। হঠাৎ সাদ্দাম আমার সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়। পরিবারের অ’জুহাত দেখিয়ে অন্যত্র বি’য়ে করার পাঁ’য়তারা করে এবং আমাকে এড়িয়ে চলে। তাকে বি’য়ে না করতে পারলে আমার জীবনটা শেষ হয়ে যাবে। এ অবস্থায় বেঁচে থাকাটাই কষ্ট। নিজ পরিবার থেকে বিচ্চিন্ন হওয়ার পথে তিনি।

বিয়ে করা স্বামীকেও ছা’ড়তে হয়েছে। শুধুমাত্র সাদ্দামের কারণে।এদিকে মেয়েটির পরিবার জানায়, লেখাপড়া করা অবস্থায় তাকে অন্যত্র বিয়ে দিলেও সাদ্দাম মেয়েটিকে সং’সার করতে দেয়নি।গতকাল অনশনরত বাড়িতে প্রে’মিক সাদ্দামের পরিবারের লোকজনকে পাওয়া যায়নি। স্থানীয়রা জানান, মেয়েটির অনশনের কথা শুনে বাড়ির লোকজন পা’লিয়েছে।

এ ব্যাপারে তারাকান্দা থানার ওসি আবুল খায়ের জানান, ভি’কটিমকে ওই বাড়ি থেকে গতকাল রাত উ’দ্ধার করা হয়েছে। ভু’ক্তভোগী পরিবারের বাড়ি ফুলপুর থাকায় মেয়েটিকে ফুলপুর থানায় পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *