হিজাব-বোরখা-নিকাব মেয়েদের ‘চয়েজ’ না, পুরুষের চয়েজ!

জাতীয়

হিজাব, বোরখা, নিকাব মেয়েদের পছন্দ না বরং তারা পুরুষের জোড়াজুড়িতেই এসব পড়েন বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশের নির্বাসিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন। আজ সোমবার সকালে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এক স্ট্যাটাস দিয়ে এ তথ্যই জানিয়েছেন বিতর্কিত এই লেখিকা। তসলিমা নাসরিনের স্ট্যাটাসটি বাংলাদেশ জার্নালের পাঠকদের জন্য হুবহু তুলে ধরা হলো-

‘হিজাব বোরখা নিকাব আবায়া খিমার কোনওটাই মেয়েদের ‘চয়েজ’ নয়, সবই আদিকাল থেকে মেয়েদের জন্য পুরুষের ‘চয়েজ’। পুরুষের চয়েজের চপারের তলায় মেয়েদের ইচ্ছেরা বলি হয়। মেয়েরা ভুল করে মনে করে এ বুঝি তাদের ইচ্ছে, তাদের ‘চয়েজ’। পুরুষেরা কেন পুরুষদের জন্য বোরখা নিকাব খিমার আবায়া ‘চয়েজ’ করে না? কারণ এসব মানুষের স্বাধীনতা, অধিকার সব নষ্ট করে দেয়, মানুষকে বদ্ধ কারাগারে বন্দি করে।’

আরও পড়ুন= চলমান মহামারি করোনা পরিস্থিতির কারণে ২০২০ সালে পঞ্চম শ্রেণির সমাপনী পরীক্ষা ছাড়াই শিক্ষার্থীদের পাসের সার্টিফিকেট দেয়ার কথা ভাবছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর (ডিপিই)। তবে এ বছরের সার্টিফিকেটে কোনো গ্রেড বা জিপিএ নম্বর থাকবে না।চলমান করোনা মহামারির জন্য গত ১৮ মার্চ থেকে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে।

এ পরিস্থিতিতে চলতি বছর পঞ্চম শ্রেণির সমাপনী পরীক্ষা আয়োজন করা হচ্ছে না। আগামী নভেম্বরের মধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা সম্ভব না হলে পঞ্চম শ্রেণির অপেক্ষমাণ রেজিস্ট্রেশন করা পরীক্ষার্থীদের পাসের সার্টিফিকেট দেয়া হবে।

তবে সেসব সার্টিফিকেটে কোনো জিপিএ বা গ্রেড পয়েন্ট উল্লেখ থাকবে না। সার্টিফিকেটে শুধু উত্তীর্ণ লেখা থাকবে। সেটি নিয়ে শিক্ষার্থীরা ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তি হতে পারবে। বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক মো. ফসিউল্লাহ।এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে নিবন্ধন করা পঞ্চম শ্রেণির সব শিক্ষার্থীকে পাসের সার্টিফিকেট দেয়া হবে। ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে শিক্ষার্থীদের সার্টিফিকেট স্ব স্ব বিদ্যালয়ে পাঠানো হবে। সেখান থেকে তা বিতরণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *